শিরোনাম:

রাজশাহী-কলকাতা ট্রেন ও বিমান চালুর দাবি আ.লীগের

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি
প্রকাশিত : বুধবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ০৯:৩২
অ-অ+
রাজশাহী-কলকাতা ট্রেন ও বিমান চালুর দাবি আ.লীগের
ছবি: ব্রেকিংনিউজ

রাজশাহী: প্রধানমন্ত্রীর সফর ঘিরে উজ্জীবিত রাজশাহীর আওয়ামী লীগ। এই সফরে রাজশাহীর উন্নয়নে বিশেষ ঘোষণা দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, এমনই প্রত্যাশায় বুক বেঁধেছে স্থানীয় নেতারা। আঞ্চলিক উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন দাবিও জানানো হবে প্রধানমন্ত্রীর কাছে। 

স্থানীয় নেতারা বলছেন যেসব দাবি প্রধানমন্ত্রীর কাছে জানানো হবে সেগুলো বাস্তবায়ন হলে শুধু রাজশাহী নয় পুরো এ অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘদিনের আশা-আকাঙ্ক্ষা অনেকাংশে পূরণ হবে।

বৃহস্পতিবার রাজশাহী সফরে আসছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা। এদিন সকালে তিনি সারদায় বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে ৩৪তম বিসিএস পুলিশ ব্যাচের প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন। সেখান থেকে সকড়পথে ওইদিন বিকেলে পবার হরিয়ান চিনিকল মাঠে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় প্রধান অতিথির ভাষণ দেবেন। 

প্রধানমন্ত্রীর রাজশাহী সফর সফল করতে কয়েকদিন ধরে পবা উপজেলাসহ জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের বিভিন্ন ইউনিট পৃথকভাবে নানা কর্মসূচি পালন করছে। এছাড়াও জেলার অন্যান্য উপজেলা, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পর্যায়েও হয়েছে প্রচার সভা ও সামবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

এবারের জনসভা জনসমুদ্রে পরিণত করতে সর্বাত্মক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে আওয়ামী লীগ। এ কারণে সভা পবা উপজেলা হলেও জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সব নেতারা এখন মাঠে নেমেছেন একযোগে। 

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ বলেন, জনসভায় ব্যাপক লোক সমাগম করতে গত ক’দিন ধরে মাঠ পর্যায়ে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে আওয়ামী লীগ ও সহযোগি সংগঠনগুলো। জনসভাকে ঘিরে নেতা কর্মীরা যেভাবে উজ্জিবিত হয়েছে তা আগামী জাতীয় নির্বাচনেও প্রভাব ফেলবে। 

তিনি বলেন জনসভায় ৫ লক্ষাধিক সাধারণ মানুষের উপস্থিতি ঘটবে বলে আমরা আশাবাদী। এই জনসভায় স্থানীয় আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে যেসব দাবি জানানো হবে সেগুলো বাস্তবায়ন হলে এ অঞ্চলের চেহারা বদলে যাবে । তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখনই রাজশাহী সফরে এসেছেন তখনই উন্নয়নের ঘোষণা দিয়েছেন। এবারো আমরা আশাবাদি তিনি যা দিয়ে যাবেন তা এঅঞ্চলের মানুষের ভাগ্য বদলে বিশেষ অবদান রাখবে। সেই সাথে এই জনসভা আগামী জাতীয় নির্বাচন এবং সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ইতিবাচক প্রভাব রাখবে।

রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, প্রধানমন্ত্রীর এই আগমন রাজশাহী অঞ্চলের উন্নয়নে বিশেষ অবদান রাখবে। রাজশাহী বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করা এবং রাজশাহী থেকে ভারতের কলকাতা ট্রেন ও বিমান চালুসহ বিভিন্ন দাবি জানানো হবে প্রধানমন্ত্রীর কাছে। তিনি বলেন, যেসব দাবি প্রধানমন্ত্রীর কাছে জানানো হবে তা এ অঞ্চলের মানুষের প্রাণের দাবি আমরা আশাবাদি তিনি আমাদের হতাশ করবেন না। অতীতেও তিনি যেমন আমাদের এগিয়ে নিয়ে গেছেন এবারো তেমনই করবেন বলে আমরা আশাবাদি।

পবা-মোহনপুর আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আগমনের সকল প্রস্তুতি শেষ। আমরা প্রধানমন্ত্রীর আগমনের প্রতিক্ষায় আছি। তিনি আরও বলেন, রাজশাহীর ইতিহাসে এটা হবে ঐতিহাসিক সভা। সভাটি জন-সমুদ্রে পরিণত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি/ এসডিএম/ এমএইচ