শিরোনাম:

দালালের খপ্পরে পড়ে ৮ রোহিঙ্গা এখন যশোর কারাগারে

জেলা প্রতিনিধি, ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি
প্রকাশিত : বুধবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১১:০৬
অ-অ+
দালালের খপ্পরে পড়ে ৮ রোহিঙ্গা এখন যশোর কারাগারে
ছবি: ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি

যশোর: জীবন বাঁচাতে মায়ানমার থেকে স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে ৮ দিন আগে বাংলাদেশের উদ্দেশে রওনা হয়েছিলেন রোহিঙ্গা যুবক জাহিদ হোসেন ও আজিজুল হক। পথে দালালের খপ্পরে পড়েন তারা। কয়েকদিন ধরে পাহাড়, জঙ্গল, নদী পেরিয়ে তারা একটা নিরাপদ স্থানে পৌঁছানোর পর বুঝতে পারেন দালালরা তাদেরকে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের একটা স্থানে পাঠিয়ে দিয়েছে। সেখান থেকে খোঁজখবর নিয়ে জানতে পারেন তাদের স্বজনরা রয়েছেন বাংলাদেশের কক্সবাজার জেলায় অবস্থিত কোন এক শরনার্থী শিবিরে। সিদ্ধান্ত নেন, ভারত থেকে তারা বেনাপোল হয়ে শরণার্থী শিবিরে স্বজনদের কাছেই যাবেন।

বুধবার (১৩ সেপ্টেম্বর) ভোর সাড়ে ৫টার দিকে বেনাপোল সীমান্তের খলসী এলাকার একটি রাস্তা থেকে বিজিবি সদস্যরা জাহিদ হোসেন ও আজিজুল হককে স্বপরিবারে আটক করে। 

এসময় জাহিদ হোসেনের সাথে তার স্ত্রী ইয়াসমিন (১৯), দুই বছরের ছেলে আরমান, ৯ মাস বয়সী ছেলে ইমরান এবং আজিজুল হকের সাথে তার স্ত্রী আফসা (২৪), ৭ বছর বয়সী ছেলে ইকবাল হোসেন ও ৪ বছর বয়সী ছেলে হাফিজুর ছিল। বিজিবি সদস্যরা এ ৮ জনকে বুধবারই বেনাপোল পোর্ট থানায় সোপর্দ করে। পরে বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ এসব রোহিঙ্গা শরনার্থীদের নিরাপদ হেফাজতে রাখার আবেদন জানিয়ে যশোর আদালতে প্রেরণ করে। 

যশোরের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মো. বুলবুল ইসলাম ৮ রোহিঙ্গা শরণার্থীকে যশোর কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এদিকে নারী-শিশুসহ এসব রোহিঙ্গা শরনার্থীদের যশোর আদালতে নেয়া হলে সেখানে উৎসুক জনতা ভীড় করেন। অনেকেই তাদের কাছে রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের কাহিনী শুনতে চান। স্থানীয় লোকজন এমনকি আদালতের কর্মচারীরা পর্যন্ত রোহিঙ্গাদের ওপর নির্যাতনের কাহিনী শুনে অবাক হয়ে যান। সবাই তাদের প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করেন। অনেকেই তাদেরকে টাকা দিয়েও সাহায্য করেছেন।

ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি/এসজেড

সংশ্লিষ্ট আরো খবর