শিরোনাম:

তানোরে গৃহবধূকে ধর্ষণ

উপজেলা প্রতিনিধি, ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি
প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ১২ অক্টোবর ২০১৭, ১১:০৯
অ-অ+
তানোরে গৃহবধূকে ধর্ষণ
ছবি: প্রতীকী

তানোর, রাজশাহী: জেলার তানোরে গৃহবধূকে ধর্ষণ ও হত্যা চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। এমনকি এ ঘটনার ৪দিন অতিবাহিত হলেও ওই গৃহবধূকে কোন মামলা ও চিকিৎসা নিতে দেয়নি এলাকার মাতব্বররা।

রবিবার (৯ অক্টোবর) সন্ধ্যায় উপজেলার সরনজাই ইউপি এলাকায় শুকদেবপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে ওই গৃহবধূ মানবেতর জীবন-যাপন করছে।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার সরনজাই ইউপি এলাকার শুকদেবপুর গ্রামের ওই গৃহবধূ গত রবিবার সন্ধ্যার দিকে মায়ের বাড়ি থেকে ফিরছিলো। এসময় আগে থেকেই ওঁৎ পেতে থাকা একই গ্রামের ১ সন্তানের বাবা নাদের মোল্লার ছেলে শামিম ঘরে ঢুকেই গৃহবধূর মুখ চেপে ধরে। এরপরেই চলে ওই গৃহবধূর উপর নির্যাতন। 

গৃহবধূ জানান, এ ঘটনায় থানায় আইনের আশ্রয় নেয়ার কথা বললে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেলিম, শরিফ, রাজ্জাক, নুর মোহাম্মাদ মাসুদরা গ্রামে বসে মীমাংসার কথা বলে আমাকে বাড়ি থেকে বের হতে দেয়নি। এমনকি মেডিকেলে চিকিৎসা নিতে যেতে দেয়নি। মেডিকেলে গেলে নাকি পুলিশি ঝামেলা হবে। আমি এ ঘটনার ন্যায্য বিচার চাই, যাতে এমন ঘটনা কেউ ঘটাতে না পারে। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেলিম ব্রেকিংনিউজকে জানান, নিজেদের মধ্যে ঘটনা এজন্য গ্রামে বসে মীমাংসার কথা বলা হয়েছে। মামলা করে উভয়পক্ষ ক্ষতির মধ্যে পড়বে। 

এ ঘটনায় আপনি কীভাবে মীমাংসা করবেন এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, গ্রাম্য শালিসে মোটা অঙ্কের টাকা জরিমানা করে কঠিন সাজা দেয়া হবে। 
ওই গৃহবধূর মা জানান, আমার মেয়ের মুখে ও গলায় নখ দিয়ে চামড়া ছিঁড়ে ফেলেছে। চিকিৎসার জন্যে কোথাও নিয়ে যেতে পারছিনা । কোন জামানায় বাস করছি। মেয়েটি আমার ৪ দিন ধরে ভালোমত খাবার খেতে ও কথা বলতে পারছেনা। ঠিকমত বসে থাকতে পারছেনা। 
গৃহবধূর স্বামী ব্রেকিংনিউজকে জানান, আমি বাড়িতে না থাকার কারণে এমন সুযোগ নিয়েছে শামিম। আমি তার শাস্তি চাই। 

শামিমের বাবা নাদের ব্রেকিংনিউজকে জানান, আমার ছেলে অপরাধ করেছে, গ্রামের লোকজন বিচার করতে চেয়েছেন। 

তানোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল ইসলাম ব্রেকিংনিউজকে জানান, এ ঘটনায় কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে। এসব ঘটনা মীমাংসা যোগ্য নয় বলে জানান তিনি। 

ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি/ এসজেড