শিরোনাম:

গ্রন্থমেলা : এগিয়ে কবিতার বই

এ কে এম ইমরান হোসাইন
প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ১০:১৩
অ-অ+
গ্রন্থমেলা : এগিয়ে কবিতার বই

দেখতে দেখতে অমর একুশে বইমেলার প্রায় অর্ধেক পেরিয়ে গেছে। মাঝামাঝি সময়ে এসে লেখক-পাঠক-ক্রেতা-বিক্রেতা আর সাহিত্যজনদের পদচারণায় পুরোদমেই জমে উঠেছে মেলাপ্রাঙ্গণ। প্রতিদিনই নতুন নতুন বইয়ের মোড়ক উম্মোচন হচ্ছে। এর মধ্যে প্রতিদিনই বিভিন্ন ক্যাটাগরির বই প্রকাশ হচ্ছে। তবে এসব বইয়ের মধ্যে এবারের একুশে গ্রন্থমেলায় কবিতার বই সবচেয়ে বেশি প্রকাশ হচ্ছে।

মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) ছিল মেলার ১৩ তম দিন। এদিন মেলায় বিভিন্ন ক্যাটাগরির ১৫০টি নতুন বই প্রকাশ হয়েছে। এর মধ্যে শুধু কবিতার বই রয়েছে ৫৭টি। এছাড়া দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৭টি বই ছিল উপন্যাসের।



সূত্র জানিয়েছে, মঙ্গলবারের মত এমন চিত্র মেলার শুরু থেকেই দেখা যাচ্ছে। বাংলা একাডেমির তথ্য অনুযায়ী, এ পর্যন্ত ১৩ দিনে ১৭৪০টি নতুন বই প্রকাশ হয়েছে। যার মধ্যে কবিতার বই রয়েছে ৫০০টি। ৩০৮টি নতুন বই নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে উপন্যাস। 

এর বাইরে গল্পের ২৩৭টি, প্রবন্ধে ৯৭টি, গবেষণার ৩৭টি, ছড়ার ৩৯টি, শিশুতোষ ৫৭টি, জীবনী ৪৩টি, রচনাবলী ৯টি, মুক্তিযুদ্ধের ৩৮টি, নাটকের ১১টি, বিজ্ঞানের ৩১টি, ভ্রমণের ৩৬টি, ইতিহাসের ৫৯টি, রাজনীতির ৬টি, চিকিৎসার ১৪টি, রম্যের ৭টি, ধর্মিয় ৮টি, অনুবাদের ১৬টি, অভিধান ৪টি, সায়েন্স ফিকশন ২৬টি এবং অন্যান্য ১৫৭টি নতুন বই প্রকাশিত হয়েছে।



বাংলা একাডেমির সহকারী জনসংযোগ কর্মকর্তা পিয়াস মজিদ ব্রেকিংনিউজকে বলেন, ‘এবার বইমেলায় কবিতার বই বেশি প্রকাশিত হচ্ছে। অন্যান্য ক্যাটাগরির চেয়ে প্রকাশনার দিক দিয়ে কবিতার বই কয়েকগুণ বেশি দেখা যাচ্ছে।’

এদিকে মঙ্গলবার মেলাপ্রাঙ্গণ ঘুরে দেখা যায়, আগের যেকোনও দিনের চেয়ে এদিন কয়েকগুণ বেশি উপস্থিতি। দিনভরই ছিল ক্রেতা-দর্শনার্থীদের উপচেয়ে পড়া ভিড়। যাদের অনেকেই এসেছিলেন বসন্তের সাজে। তবে ক্রেতার তুলনায় দর্শনার্থীই ছিলেন বেশি। অনেকে এসেছেন প্রিয় মানুষের হাত ধরে, বাসন্তী শাড়ি পড়া অনেক তরুণীকেও দেখা গেছে দল বেঁধে ঘুরতে। বসন্তের প্রথম দিন হওয়ায় অনেকে দিনটিকে অন্যরকমভাবে কাটাতে বইমেলায় আসেন।



মেলায় ঘুরতে আসা ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী ফয়সাল আরেফিন ব্রেকিংনিউজকে বলেন, ‘আজ প্রিয়জনদের সাথে ঘুরতে বেরিয়েছি। ভাললাগা থেকেই মেলায় এসে নতুন নতুন বই দেখছি। এখনও কোনও বই কেনা হয়নি। তবে মেলার শেষের দিকে নতুন সব বইয়ের মধ্যে কয়েকটি বই কিনবো।’

এদিকে মেলায় ক্রেতা-দর্শনার্থী বাড়ায় অনেকটাই সন্তোষ প্রকাশ করেছেন লেখক ও প্রকাশকরা।

কবি মাসুম মুনাওয়ার বলেন, ‘নতুন প্রজন্ম বইমেলায় এসে নতুন নতুন বই দেখছে, কিনছে; এটা আশার কথা। ভাল বই প্রকাশ হলে অবশ্যই পাঠকও বাড়বে।’ 

ব্রেকিংনিউজ/আইএইচ/এমআর