শিরোনাম:

‘ভবন উড়িয়ে দিতে চেয়েছিলো জঙ্গিরা’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
প্রকাশিত : শুক্রবার, ১২ জানুয়ারী ২০১৮, ০২:৫০
অ-অ+
‘ভবন উড়িয়ে দিতে চেয়েছিলো জঙ্গিরা’

রাজধানীর পশ্চিম নাখালপাড়ায় র‌্যাব যে ভবনের গড়ে জঙ্গি আস্তানায় অভিযান চালিয়ে, সেই ভবনটি উড়িয়ে দিতে চেয়েছিলো জঙ্গিরা। এতে আশেপাশের ভবনসহ বেশ বড় ধরনের নাশকতা সৃষ্টি হতো। এমনই পরিকল্পনা ছিলো জঙ্গিদের। ভবনে পাওয়া বেশ কিছু আলামতে বড় ধরনের নাশকতা ঘটানোর ইঙ্গিত দেয় বলে জানিয়েছে র‌্যাব। 

শুক্রবার (১২ জানুয়ারি) গভীর রাত থেকে শুরু হওয়া অভিযানে তিন জঙ্গি নিহতের পর সকালে র‌্যাবের মহাপরিচালকসহ উদ্ধর্তন কর্মকর্তারা আস্তানা পরিদর্শন করেছেন। 

র‌্যাব জানিয়েছে, জঙ্গি আস্তানার ভেতরে একাধিক সুইসাইডাল ভেস্ট, পিস্তল, বিস্ফোরক, অবিস্ফোরিত ইম্প্রোভাইজড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস (আইইডি) ও কিছু বাল্ব পাওয়া গেছে। এছাড়া সেখানে বিভিন্ন বিস্ফোরক দ্রব্যও পাওয়া গেছে। 

র‌্যাব ডিজি বেনজীর আহমেদ জঙ্গি আস্তানা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের বলেন, আস্তানার ভেতরে গ্যাসের চুলা ছেড়ে এর ওপর একটি গ্রেনেড রেখে দিয়েছিল জঙ্গিরা। বড় বিস্ফোরণ ঘটানোর জন্যই তারা এটি সেখানে রেখেছিল। এই বিস্ফোরণ হলে গোটা ভবন ধসে যেত। আমাদের ধারণা বিস্ফোরণ ঘটিয়ে গোটা ভবন ধসিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছিল জঙ্গিরা। 

তিনি বলেন, গত ৪ জানুয়ারি তারা বাসা ভাড়া নেয়। অথচ এই বিষয়ে বাড়ির মালিক কিছুই জানতেন না। বাড়ির কেয়ারটেকার বাড়ি ভাড়া দিয়েছিল। 

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে পশ্চিম নাখালপাড়ার পুরাতন এমপি হোস্টেল সংলগ্ন ১৩/১ নম্বর হোল্ডিংয়ের রুবি ভিলা ঘিরে ফেলে র‌্যাব। একপর্যায়ে ভেতরে থেকে র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ও গ্রেনেড ছুড়ে জঙ্গিরা। এ সময় র‌্যাবও পাল্টা গুলি চালায়। এ ঘটনায় র‌্যাবের দুই সদস্য আহত হয়েছেন। তাদের হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব। এর আগেই ওই ভবনের ৬৫ জন বাসিন্দাকে নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। 

ব্রেকিংনিউজ/ এমআরএস/ এসএ