শিরোনাম:

পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ ডাকাত নিহত

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি
প্রকাশিত : রবিবার, ২১ জানুয়ারী ২০১৮, ০৯:৪৩
অ-অ+
পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ ডাকাত নিহত
ছবি প্রতীকী

আটকের একদিন পর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে পুলিশের সঙ্গে কথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২ ডাকাত  নিহত হয়েছে। পুলিশের দাবি, নিহতরা আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য। 

রবিবার ভোরে উপজেলার শাহবাজপুর উত্তর পাড়া এলাকায় এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। 

নিহতরা হলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার সুতিয়ারা এলাকার আব্দুল আওয়াল মিয়ার ছেলে এনতা প্রকাশ আব্দুল ওহাব (৩০) ও হবিগঞ্জ লাখাই সজলগ্রামের আক্তার হোসেনের ছেলে আবুল বাসার (২৮)। বাসারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ৫টি ও ওহাবের বিরুদ্ধে হত্যাসহ ৬টি ডাকাতির মামলা রয়েছে। 

কথিত বন্দুকযুদ্ধে সরাইল সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. মনিরুজ্জামান ফকির, সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মফিজ উদ্দিন ভুইয়াসহ ৪ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। আহতরা ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। 

সরাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মফিজ উদ্দন ভুইয়া বিষয়টি নিশ্চিত করে ব্রেকিংনিউজকে জানান, গত শুক্রবার মধ্যরাতে সরাইলের শাজবাজপুরের একটি বাড়িতে ডাকাতির সময় ওয়াব ও বাসারসহ আরও ৬ জনকে এলাকাবাসী ও পুলিশ হাতেনাতে আটক করে। পরে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের সময় ওহাব ও বাসার জানান, বিভিন্ন স্থান থেকে ডাকাতির সময় লুণ্ঠন করা মালামাল শাহবাজপুরের উত্তর পাড়া এলাকায় লুকিয়ে রাখা আছে। 

তিনি জানান, এমন তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ তাদের নিয়ে রবিবার ভোরে ডাকাতির মালামাল উদ্ধার করতে শাহবাজপুরের উত্তর পাড়া এলাকায় যায়। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তাদের সহযোগীরা পুলিশের ওপর গুলি ছোড়ে ওহাব ও বাসারকে ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে। এসময় সহযোগীদের ছোড়া গুলিতে ওহাব ও বাসার ছাড়াও পুলিশের ৪ সদস্য আহত হন। পরে অন্য ডাকাত সদস্যরা পালিয়ে যায়। 

আহতদের উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ওহাব ও বাসারকে মৃত ঘোষণা করেন। 

ওসি আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি পাইপগান একটি কার্তুজসহ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। নিহতদের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। 

ব্রেকিংনিউজ/এসএ/এমআর