শিরোনাম:

‘যে যেখানে আছি সেখান থেকে প্রতিবাদ করতে হবে’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট,
ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি
প্রকাশিত : শনিবার, ১২ অগাস্ট ২০১৭, ০৯:২০
অ-অ+
‘যে যেখানে আছি সেখান থেকে প্রতিবাদ করতে হবে’

ঢাকা: সরকারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ এনে তা রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, ‘এই অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে, যে যেখানে আছি সেখান থেকে প্রতিবাদ করতে হবে।’

আরাফাত রহমান কোকো’র ৪৮ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। শনিবার (১২ আগস্ট) বিকেলে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ ক্রীড়া উন্নয়ন পরিষদ এ আলোচনা সভার আয়োজন করে। আরাফাত রহমান কোকো বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে। 

আলোচনা সভায় ফখরুল বলেন, ‘বাংলাদেশের জনগণের কাছে প্রশ্ন একটাই। আপনারা কি দেশের বর্তমান এই ফ্যাসিবাদী অবস্থা মেনে নেবেন, নাকি নেবেন না। তাহলে এ অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে যে যেখানে আছি সেখান থেকে প্রতিবাদ করতে হবে। রুখে দিতে হবে। কারণ, এই দেশ বুকের রক্ত দিয়ে যুদ্ধ করে স্বাধীন করেছি। সেই দেশ ও জাতিকে এভাবে নষ্ট হতে দিতে পারি না।’ 

আওয়ামী লীগের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ রাষ্ট্র বা দেশকে মনে করে তারাই রাষ্ট্র। তারাই দেশ।’

আরাফাত রহমান কোকোর স্মৃতিচারণ করে ফখরুল বলেন, ‘তার সঙ্গে আমার ব্যক্তিগত সম্পর্ক ছিলো খুব সীমিত। বয়সে ছিলো অনেক ছোট। আমরা রাজনীতিতে থাকার কারণে ক্রীড়াঙ্গনের সাথে ঠিক সেভাবে পরিচয় হয়ে উঠেনি। রাজনীতির অঙ্গনে কোকোকে খুব একটা দেখিনি। চোখেই পড়েনি বলা যায়। তবে দু’য়েকটি সামাজিক অনুষ্ঠানে দেখেছি, আর দেখা হলে সালাম দিয়ে অত্যন্ত বিনয়ের সঙ্গে চলে যেতেন। এক কথায় সে ব্যবহার ও আচরণে ছিল বিনয়ী। রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠে বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনে, বিশেষ করে ক্রিকেটের অবকাঠামোগত উন্নয়নে তিনি অবদান রেখেছেন অসীম।’

দেশে সব ক্ষেত্রে অবিচার, নির্যাতন চলছে অভিযোগ করে ফখরুল বলেন,‘আমাদের (বিএনপি) ওপর অনেক নির্যাতন হয়েছে। এখনও হচ্ছে। যার ধারাবাহিকতায় আরাফাত রহমান কোকো চলে গেছেন। তার বড় ভাই বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান বিদেশে নির্বাসিত আছেন। গণতান্ত্রিক আন্দোলনের আপোষহীন নেত্রী খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করে হয়রানি করা হচ্ছে। এর উদ্দেশ্য একটাই এই আওয়ামী লীগ সরকার বিএনপি ও খালেদা জিয়াকে ভয় পায়। ভয় পায় এই জন্য যে, খালেদা জিয়া যদি জনগণকে নিয়ে মাঠে নেমে পড়েন তাহলে তাদের সব অর্জন নষ্ট হয়ে যাবে।’

আয়োজক সংগঠনের নির্বাহী সভাপতি আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন- ক্রীড়া সংগঠক নুরুল কবির শাহীন, মোস্তাকুর রহমান, আমিনুল হক।

ব্রেকিংনিউজ/এম/এনএআর