শিরোনাম:

ঝিঁঝিঁ পোকা থেকে রুটি!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রকাশিত : সোমবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৬:৫৭
অ-অ+
ঝিঁঝিঁ পোকা থেকে রুটি!

ঢাকা: সব সময় তো আমরা গম কিংবা যবের আটা-ময়দা থেকে প্রস্তুত রুটি খেয়েই অভ্যস্ত। কিন্তু ঝিঁঝিঁ পোকা থেকেও যে রুটি তৈরি হতে পারে, তা কি আমরা ভাবতে পারি?

ভাবতে না পারলেও এই কাজটিই শুরু করেছে একটি বেকারি এবং তা বিক্রি করা হবে ক্রেতাদের কাছে।

বিশ্বে এই প্রথম পোকামাকড় থেকে রুটি উৎপাদনের কাজ করেছে ফিনল্যান্ডের বেকারি ও খাদ্য সরবরাহ কোম্পানি ফেজার। বৃহস্পতিবার এ কাজের উদ্বোধন করে তারা।

রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রুটিগুলোতে শুকনো ঝিঁঝিঁ পোকা গুড়া করে ব্যবহার করা হয়। সঙ্গে থাকে গমের ময়দা এবং অন্যান্য উপকরণ। রুটিতে বেশি মাত্রায় জোগান দিতেই এই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

একেকটি রুটিতে ৭০টি ঝিঁঝিঁ পোকা ব্যবহার করা হয়। তৈরিতে খরচ পড়ে ৩.৯৯ ইউরো, যেখানে ঝিঁঝিঁ পোকাবিহীন রুটিতে খরচ পড়তো দুই থেকে তিন ইউরো।

ফেজারের হেড অব ইনোভেশনের প্রধান জুহানি শিবাকভ বলেন, ‘আমাদের প্রতিষ্ঠান ভোক্তাদের জন্য আরো বেশি প্রোটিন নিশ্চিত করতে চাইছে। এছাড়া তারা যাতে নতুন এই রুটির সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারে সেদিকেও খেয়াল রাখছে।’

গত নভেম্বরে ব্রিটেন, নেদারল্যান্ডস, বেলজিয়াম, অস্ট্রিয়া এবং ডেনমার্কের সঙ্গে খাদ্য হিসেবে বাজারে পোকামাকড় বিক্রিকারী দেশের তালিকায় যোগ দেয় ফিনল্যান্ড।

শিবাকভ জানান, গত গ্রীষ্ম থেকেই ফেজার এই ধরনের রুটি তৈরির জন্য কাজ করে আসছে। তবে ফিনল্যান্ডে এ বিষয়ে আইন পাস হতে দেরি হওয়ায় তাদের অপেক্ষা করতে হয়েছে।

ঝিঁঝিঁ পোকার পর্যাপ্ত সরবরাহ না থাকায় আপাতত ফেজারের ১১টি স্টোরে বিক্রি করা হবে নতুন এই রুটি। আগামী বছরের মধ্যে অন্তত ৪৭টি স্টোরে এটি বিক্রির পরিকল্পনা রয়েছে তাদের।

বর্তমানে নেদারল্যান্ডস থেকে ঝিঁঝিঁ পোকার তৈরি আটা কিনছে ফেজার। স্থানীয় সরবরাহকারী খুঁজছে তারা।

প্রসঙ্গত, পোকামাড় খাওয়াকে ‘এনটোমফ্যাজি’ বলা হয়। বিশ্বের অনেক দেশেই এই প্রথা প্রচলিত। জাতিসংঘের হিসাব অনুসারে, বিশ্বের অন্তত ২ বিলিয়ন মানুষ পোকামাকড় খাওয়ায় অভ্যস্ত।

ব্রেকিংনিউজ/ আরএস