শিরোনাম:

ঢাকার যা কিছু প্রথম

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত : সোমবার, ০৮ জানুয়ারী ২০১৮, ০১:৪৮
অ-অ+
ঢাকার যা কিছু প্রথম

আজ আপনাদের সাথে পরিচয় করিয়ে দেবো ঢাকা শহরের যা কিছু প্রথম এমন কিছু স্থাপনার সাথে, তবে আজকে শুধুমাত্র শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর সাথেই আপনাদের পরিচয় করিয়ে দেবো:
 
ঢাকা শহরের প্রথম সরকারি স্কুল: ঢাকা শহরের স্থাপিত প্রথম স্কুলটি হলো ঢাকা কলেজিয়েট স্কুল। শুধু ঢাকা শহর বললে ভুল হবে এই স্কুলটি এই উপমহাদেশের প্রথম স্কুল। এই বিদ্যালয়টি পুরনো ঢাকার সদরঘাটে অবস্থিত। মিস্টার রিজ নামে একজন ইংরেজ মিশনারী ১৮৩৫ সনের ১৫ জুলাই বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেন এবং তিনিই এই বিদ্যালয়ের প্রথম প্রধান শিক্ষক। পাশ্চাত্য শিক্ষা বিস্তারের জন্য পূর্ব বাংলায় এটাই প্রথম বিদ্যালয়। অবিভক্ত বাংলায় এটিই প্রথম সরকারি উচ্চবিদ্যালয়।
 
প্রথমে এর নাম দেয়া হয়েছিল ঢাকা ইংলিশ সেমিনারি। ১৮৪১ সনে এ সেমিনারি হতেই ঢাকা কলেজের জন্ম হয়। তখন স্কুল শাখাটির নাম রাখা হয় ঢাকা কলেজিয়েট স্কুল এবং কলেজের অধ্যক্ষের তত্ত্বাবধানে বিদ্যালয়টি ১৯০৮ সনের জুন পর্যন্ত পরিচালিত হয়। ১৯০৮ সনের জুলাই মাসে এই বিদ্যালয়টি বিদ্যালয় পরিদর্শকের তত্ত্বাবধানে নেয়া হয়। তখন থেকেই বিদ্যালয়টি জিলা স্কুলের মর্যাদা পেয়ে আসছে। কিন্তু বিদ্যালয়টির নাম ঢাকা কলেজিয়েট স্কুল রয়ে যায়।
 
ঢাকা শহরের প্রথম সরকারি মাদ্রাসা: বিভিন্ন সূত্র থেকে প্রাপ্ত তথ্য মতে ঢাকা মাদ্রাসাই এই শহরে স্থাপিত প্রথম মাদ্রাসা। এই বাংলার মানুষদের ইসলামী শিক্ষায় শিক্ষিত করার উদ্দেশ্যেই ১৮৭৪ সালে ঢাকা মাদ্রাসা স্থাপিত হয়। ১৮৭২ সালে নওয়াব আবদুল গনির নেতৃত্বে মুসলমান এলিটরা সরকারের কাছে কলকাতা ও হুগলির মতো ঢাকায়ও একটি মাদ্রাসা স্থাপনের আবেদন করেন। সরকার ১৮৭৩ সালে মুহসীন ফান্ড থেকে ১০ হাজার টাকা আলাদা করে রেখেছিল একটি মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করতে। এ জন্য একটি তত্ত্বাবধায়ক কমিটিও গঠিত হলো। এরপর ১৮৭৪ সালের মার্চে প্রতিষ্ঠিত হলো ঢাকা মাদ্রাসা। ১৯৬৮ সালে পাকিস্তান সরকারের নির্দেশে মুহসিন ফান্ডের অধীনে করা মাদ্রাসাগুলো হাই স্কুলে পরিণত হয়। আর স্বাধীনতার পর ইসলামিক ইন্টারমিডিয়েট কলেজের নামকরণ হয় কবি নজরুল সরকারি কলেজ।
 
ঢাকা শহরের প্রথম কলেজ: ঢাকার প্রথম সরকারি স্কুল ‘ঢাকা কলেজিয়েট স্কুল’ থেকেই উৎপত্তি হয় ‘ঢাকা কলেজের’। ১৮৪১ সালে এ স্কুলেরই শাখা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয় ‘ঢাকা সেন্ট্রাল কলেজ’। প্রথম পর্যায়ে কলেজটিতে জুনিয়র এবং সিনিয়র নামে দুটি শাখা ছিল। সিনিয়র পর্যায়ে ইউরোপীয় বিজ্ঞান ও সাহিত্য এবং জুনিয়র পর্যায়ে ইংরেজি, বাংলা, গণিত, ইতিহাস ও ভূগোল পড়ানো হতো। স্থানীয় জনসাধারণের চাঁদার টাকায় জমি কিনে কলেজটির নতুন ভবন নির্মিত হয় পুরান ঢাকায়, যা কলেজিয়েট স্কুল এবং পরবর্তী সময়ে ঢাকা কলেজ নামে নামকরণ করা হয়। আর এ ভবনের ভিত্তি স্থাপন করার জন্য এসেছিলেন কলকাতার বিশপ। এটি নির্মিত হতে সময় লেগেছিল চার বছর। প্রতিষ্ঠার এক বছরের মধ্যেই এ কলেজের ছাত্রসংখ্যা দাঁড়ায় ৩৪৪। ১৮৫৭ সালে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর ঢাকা সেন্ট্রাল কলেজকে দুই ভাগে ভাগ করা হয়। একাংশের নাম হয় ঢাকা কলেজ অন্য অংশ ঢাকা কলেজিয়েট স্কুল। ১৮৫৭-৫৮ সালে কলেজটি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে অনুমোদন পায়। ঢাকা কলেজের প্রথম বিএ পরীক্ষার্থী ছিলেন দীননাথ সেন।
 
ঢাকা শহরের প্রথম বিশ্ববিদ্যালয়: প্রথম বিশ্ববিদ্যালয়ের কথা আর কি বলবো, এর কথা কে না জানে। তবে শুধু এতটুকু বলি ১৯২১ সালে স্থাপিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্য পি. জে. হার্টগ, এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের মধ্যে প্রথম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হন অধ্যাপক মাহমুদ হুসাইন।
 
ব্রেকিংনিউজ/জিয়া