শিরোনাম:

সহজ উপায়ে নিয়ন্ত্রণে রাখুন ডায়াবেটিস

স্বাস্থ্য ডেস্ক, ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি
প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৭, ০৮:০৮
অ-অ+
সহজ উপায়ে নিয়ন্ত্রণে রাখুন ডায়াবেটিস

ঢাকা: দিন দিনই মানুষ নানা নতুন রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। যার মধ্যে হরহামেশাই দেখা যায় ডায়াবেটিসের সমস্যা। বাংলাদেশে এ রোগে আক্রান্তের সংখ্যা নেহায়েত কম নয়। সহজ কথায় বলতে গেলে রক্তে শর্করার পরিমাণ বেড়ে যাওয়াকে মধুমেহ বা ডায়াবেটিস বলা হয়ে থাকে। একে নিঃশব্দ ঘাতক বলা হয়ে থাকে। এই রোগে শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ ধীরে ধীরে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। যার জেরে একসময় রোগীর মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে।

আজ ১৪ নভেম্বর বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস। বিশ্ব জুড়ে ডায়াবেটিস সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে এ দিবসটি পালন করা হয়। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ‘সকল গর্ভধারণ হোক পরিকল্পিত’।

তবে ডায়াবেটিসের মতো রোগ থেকে যতটানা চিকিৎসা কিংবা ওষুধের মধ্য দিয়ে মুক্ত হওয়া সম্ভব তারচেয়েও এটি বেশি নির্ভর করে আক্রান্ত ব্যক্তির জীবনযাপনের উপর। নিয়ন্ত্রিত খাওয়া দাওয়া ও প্রাত্যহিত অভ্যস্ততায় ডায়াবেটিস সহজেই নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব। এরকম সহজ কিছু টিপস নিচে দেয়া হলো। 

মাছ : চিকিৎসকরা সাধারণত ডায়াবেটিস রোগীদের মাছ খেতে বলেন। মাছ হচ্ছে ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিডের চমৎকার উৎস যা ডায়াবেটিসের জন্য খুবই উপকারী।

ডিম : ডিম রক্তের সুগার কমাতে সাহায্য করে। তবে ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য ডিমের কুসুম বাদ দিয়ে শুধু সাদা অংশ খাওয়াটাই ভালো।

পেয়ারা : ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য এক প্রকার সুপার ফুড হচ্ছে এই পেয়ারা। পেয়ারার উচ্চ মাত্রার ভিটামিন সি রক্তের সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখে।

আপেল : আপেল হচ্ছে খাদ্য আঁশের চমৎকার একটি উৎস যা রক্তের সুগার নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। আপেলে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ফ্রি রেডিক্যালের প্রভাব থেকে দেহকে রক্ষা করে যা রক্তের সুগার বাড়ায়।

পিনাট বাটার : গবেষণায় দেখা যায় পিনাট বাটার ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমায়। এছাড়া এতে আরো রয়েছে মনোস্যাচুরাটেড ফ্যাট যা হৃদ স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী।

তিসিবীজ : উচ্চ মাত্রার ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড আছে তিসিবীজে। তাই প্রতিদিনের খাবারে তিসিবীজ যোগ করলে রক্তের সুগারের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে এবং ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমায়।

ব্রেকিংনিউজ/এমআর