শিরোনাম:

‘অপ্রাপ্ত বয়স্ক স্ত্রীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক ধর্ষণ’

ভারত ডেস্ক
ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি
প্রকাশিত : বুধবার, ১১ অক্টোবর ২০১৭, ১২:২৮
অ-অ+
‘অপ্রাপ্ত বয়স্ক স্ত্রীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক ধর্ষণ’

ঢাকা: নাবালিকা স্ত্রীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক ধর্ষণ এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলে জানিয়ে রায় দিয়েছে ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট। তবে বৈবাহিক ধর্ষণ নিয়ে কোনও রায় দেয়নি আদালত। বুধবার এই রায় দেয় সুপ্রিম কোর্ট। 

বুধবারের রায়ের পরে নাবালিকা স্ত্রীর সঙ্গে যৌন সংসর্গ নিয়ে অস্পষ্টতা কেটে গেল। কারণ, এতদিন পর্যন্ত ধর্ষণ সংক্রান্ত ভারতীয় দণ্ডবিধির যে ৩৭৫ ধারা রয়েছে তার আওতা থেকে বিবাহিত পুরুষদের বাদ দেয়া হত। বুধবার শীর্ষ আদালত বলেছে, ‘‌ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৫ ধারার ব্যতিক্রমী ২ উপধারা বলে স্বামীদের সুরক্ষা দেয়া সংবিধান লঙ্ঘনের সমতুল্য। তা নাবালিকার মৌলিক অধিকার খর্ব করে।’‌

সুপ্রিম কোর্টের আজকের রায়ের ফলে প্রায় ২ কোটি ৩০ লাখ বালিকা বধু যৌন সংসর্গ নিয়ে অত্যাচারের হাত থেকে বাঁচতে আইনি সুরক্ষা পাবেন। বুধবার আদালতে মুখ পুড়েছে কেন্দ্রীয় সরকারেরও। ৩৭৫ এর ২ উপধারাকে সমর্থন করে কেন্দ্রীয় সরকার বলেছিল ভারতে শিশু বিবাহ কঠিন বাস্তবতা। এই ধরনের বিয়েকে সুরক্ষা দিতে হবে। 

বিচারপতি মদন বি লকুরের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ ৬ সেপ্টেম্বর কেন্দ্রের কাছে জানতে চেয়েছিল ১৮ বছরের নিচে যৌনতা নিয়ে সম্মতিকে সমর্থন করে সংসদ কিভাবে ছাড় দিয়ে মতামত দিতে পারে। আদালত স্পষ্ট করেই জানিয়েছিল, বৈবাহিক ধর্ষণ নিয়ে তারা কিছু মন্তব্য করবে না। তবে ১৮–র নিচে এই ধরনের ঘটনা ঘটলে ‘‌সবদিক’‌ বিচার করা হবে। তখনই দণ্ডবিধির ব্যতিক্রম নিয়ে কেন্দ্রের মতামত জানতে চায় আদালত। কেন্দ্রের পক্ষে আইনজীবী যুক্তিদেন এই ছাড় তুলে নিলে বৈবাহিক ধর্ষণের দরজা খুলে যাবে, ভারতে যার অস্তিত্ব নেই। জাতীয় পারিবারিক স্বাস্থ্য সমীক্ষায় (‌এনএফএইচএস)‌ দেখা গিয়েছে, ১৮ থেকে ২৯ বছর বয়সী বিবাহিত মহিলাদের বিয়ে হয়েছিল ১৮ বছরের নিচে।

ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি/ এসএইচ