শিরোনাম:

স্থগিত হলো ফোরজি কার্যক্রম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ১১ জানুয়ারী ২০১৮, ০২:২৫
অ-অ+
স্থগিত হলো ফোরজি কার্যক্রম

কথা ছিলো চলতি মাসেই ফোরজি তরঙ্গ চালুর প্রক্রিয়া জনসম্মুখে প্রকাশ পাবে। কিন্তু হঠাৎ করেই ঝুলে গেল ফোরজি সেবা আত্মপ্রকাশের ক্ষণ। আজ বৃহস্পতিবার ফোরজির সকল কার্যক্রম স্থগিত করেছেন আদালত। বিচারপতি নাঈদা হায়দার ও জাফর আহমেদের বেঞ্চ বাংলালায়নের রিটের পরিপ্রেক্ষিতে এ আদেশ দিয়েছেন।
 
আদেশে চতুর্থ প্রজন্মের এ সেবা দিতে প্রকাশিত বিজ্ঞাপনের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। বিজ্ঞাপন স্থগিতের ফলে নিলামসহ ফোরজি লাইসেন্স প্রদান সংক্রান্ত সব ধরনের উদ্যোগ পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।
 
ওয়াইম্যাক্স অপারেটর বাংলালায়নের এক আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এমন আদেশ দেয়ার কথা জানিয়ে অপারেটরটির আইনজীবী ড. কামাল হোসেনের সহকারী অ্যাডভোকেট রমজান আলী মুন্সী জানিয়েছেন, বাংলালায়ন আদালতে এ বিষয়ে রিট করে। তাদের দাবি, ওয়াইম্যাক্স এক ধরনের ব্রড ব্যান্ডসেবা। তাদের লাইসেন্স দেওয়ার সময় বিটিআরসি জানিয়েছিল দেশে আর কোনো ব্রডব্যান্ড লাইসেন্স দেওয়া হবে না। আর ফোরজিও ব্রডব্যান্ড সেবা। তাই বিটিআরসি তার নিজের নিয়মই ভাঙছে।
 
প্রসঙ্গত, গত ২৯ নভেম্বর মোবাইল ফোন অপারেটরদের আপত্তিগুলো নিষ্পত্তি করে ফোরজি লাইসেন্সিং গাইডলাইন এবং তরঙ্গ নিলাম গাইডলাইনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনুমোদন দিয়েছেন জানিয়ে তৎকালীন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম জানিয়েছিলেন নতুন বছরে ফোরজি উপহার দেবেন। কিন্তু বছর শুরুতেই মন্ত্রণালয় বদল হয়ে মন্ত্রী হন মোস্তাফা জব্বার। গতকাল তিনি বিটিআরসি'তে প্রথম অফিস করেন। সেসময় ফোরজি নিয়ে উচ্ছ্বিত ছিলেন তিনি।

অপরদিকে রিটের বিষয়ে জানতে চাইলে বিটিআরসির কর্মকর্তারা জানান, এ বিষয়ে তারা দ্রুততম সময়ে আইনগত পদক্ষেপ নেবেন। ফোরজি কার্যক্রম যাতে পিছিয়ে না যায় সেজন্য যথাযথ চেষ্টা চালাবেন।বাংলালায়নের দাবির বিষয়ে তারা বলেন, এ বিষয়ও খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
 
ব্রেকিংনিউজ/ইহক/জিসা