শিরোনাম:

উ. কোরিয়াকে হুমকি দিয়ে আমেরিকার ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি
প্রকাশিত : শনিবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৭, ০৮:২০
অ-অ+
উ. কোরিয়াকে হুমকি দিয়ে আমেরিকার ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ

ঢাকা: সম্প্রতি মার্কিন ঘাঁটিতে উত্তর কোরিয়ার হামলার হুমকির জবাবে উত্তর কোরিয়াকে ‘ধুলোয় মিশিয়ে’দেওয়ার হুমকি দেয় আমেরিকা। চলতি মাসে এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেমস ম্যাটিস পিয়ংইয়ংকে তাদের সশস্ত্র কর্মকাণ্ড স্থগিত রাখার আহ্বান জানান।

এরপরই বোমারু বিমান বি-১বি ল্যান্সার থেকে জাহাজ বিধ্বংসী দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র (এলআরএএসএম) পরীক্ষা চালাল আমেরিকা। দক্ষিণ ক্যালিফোর্নিয়াতে পরমাণু বোমা বহনে সক্ষম এক বিমান থেকে ওই পরীক্ষা চালানো হয়। মার্কিন নৌ-বাহিনীর এক বিবৃতি থেকে এমন তথ্য জানা গেছে।  খবর কলকাতা টুয়েন্টিফোর।

আন্তর্জাতিক বিশ্বকে উত্তপ্ত করে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেমস ম্যাটিস, জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তারো কোনো এবং জাপানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইতসুনোরি ওনডেরার সঙ্গে এক সাংবাদিক সম্মেলনে টিলারসন জানান, উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে যে কোন হামলার জন্য তৈরি যুক্তরাষ্ট্র। এসময় তিনি স্পষ্ট করে জানান, শক্তি প্রদর্শন যুক্তরাষ্ট্রের কাছে প্রধান এবং প্রথম পদক্ষেপ না হলেও, পেন্টাগণ তার দিক থেকে সম্পূর্ণরূপে তৈরি।

উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যখন টানাপড়েন তুঙ্গে তখন কৌশলগত ভারি বোমারু থেকে এই ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালাল আমেরিকার সেনাবাহিনী। নৌ যুদ্ধে সম্ভাব্য শত্রুর বিরুদ্ধে কঠোর প্রস্তুতির অংশ হিসেবে এই ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালানো হয়েছে বলে নৌবাহিনীর বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে। বর্তমানে ব্যবহৃত জাহাজ বিধ্বংসী হারপুন ক্ষেপণাস্ত্রের পরিবর্তে মার্কিন নৌবাহিনী ব্যবহার করবে ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র এলআরএএসএম। এটি রাডার ফাঁকি দিতে সক্ষম। কৌশলগত ভারি বোমারু বিমান বি-১বি থেকে এলআরএএসএম ছোড়াকে উল্লেখযোগ্য নতুন সাফল্য হিসেবে গণ্য করছে পেন্টাগন। মে মাসে এফ/এ-১৮ সুপার হরনেট থেকে পরীক্ষামূলক ভাবে এক হাজার পাউন্ড ওজনের এই ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া হয়েছিল।

তবে ৯ আগস্টের বিবৃতিতে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেমস ম্যাটিস বলেন, আমেরিকা ও তার মিত্র দেশগুলোর সম্মিলিত সামরিক শক্তি এখন বিশ্বের যেকোন ক্ষমতার তুলনায় আক্রমণ ও আত্মরক্ষার দিক থেকে অনেক বেশি শক্তিশালী, সুশৃঙ্খল। ’ সামরিক সক্ষমতায় উত্তর কোরিয়া কখনই যুক্তরাষ্ট্র ও এর মিত্রশক্তির সামনে দাঁড়াতে পারবে না বলেও বিবৃতিতে জানিয়েছেন ম্যাটিস। তাছাড়া সাম্প্রতিককালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জানিয়েছিলেন, উত্তর কোরিয়ার হামলার যথাযোগ্য জবাব দিতে প্রস্তুত যুক্তরাষ্ট্র।

ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি/ এমএইচ