শিরোনাম:

মামলাটির সঠিক তদন্ত হয়নি: ফরহাদ মজহারের স্ত্রী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ০১:০৩
অ-অ+
মামলাটির সঠিক তদন্ত হয়নি: ফরহাদ মজহারের স্ত্রী

বিশিষ্ট কবি ও কলামিস্ট ফরহাদ মজহারের স্ত্রী ফরিদা আক্তার বলেছেন, ফরহাদ মজহারকে অপহরণ করে চাঁদা দাবি করার অভিযোগে যে মামলা করা হয়েছে তার সঠিক তদন্ত হয়নি। মামলাটি পুনরায় তদন্ত করার প্রয়োজন রয়েছে। তাহলে এর মূল রহস্য উদঘাটন হবে।

বৃহস্পতিবার (০৭ ডিসেম্বর) ঢাকা মহানগর হাকিম খুরশীদ আলমের আদালতে মামলাটির চূড়ান্ত প্রতিবেদন গ্রহণের দিন ধার্য ছিল। কিন্তু মামলার সঠিক তদন্ত হয়নি বলে তদন্ত প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে নারাজির জন্য সময় আবদেন করেন ফরহাদ মজহারের আইনজীবী সৈয়দ জয়নুল আবেদীন মেজবাহ। পরে আদালত সময় মঞ্জুর করে আগামী ৯ জানুয়ারি নারাজি আবেদনে দিন ধার্য করেন এবং একই দিন চূড়ান্ত প্রতিবেদন গ্রহণের দিন ধার্য করেন।

আদালতে উপস্থিত ছিলেন ফরহাদ মজহারের স্ত্রী ফরিদা আক্তার। আদালত থেকে তিনি বেরিয়ে সাংবাদিকদের বলেন, কবি ও প্রাবন্ধিক ফরহাদ মজহারকে অপহরণ করে চাঁদা দাবি করার অভিযোগে সেটিতে অভিযোগের বিষয়ে সত্যতা প্রমাণিত না হওয়ায় চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। আমরা মনে করে মামলাটির সঠিক তদন্ত হয়নি। তাই আদালতে নারাজি দেয়ার জন্য সময়ের আবেদন দাখিল করেছি।

এর আগে ৩১ অক্টোবর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক মাহাবুবুল ইসলাম আদালতে কবি ও প্রাবন্ধিক ফরহাদ মজহারকে অপহরণ করে চাঁদা দাবি করার অভিযোগে যে মামলা দায়ের করা হয়েছিল সেটিতে অভিযোগের বিষয়ে সত্যতা প্রমাণিত না হওয়ায় চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।

গত ৩ জুলাই ভোরে বাসার সামনে থেকে ফরহাদ মজহারকে অপহরণ করে দুর্বৃত্তরা। অপহরণের আধা ঘণ্টা পর মজহারের ফোন থেকে তার স্ত্রী ফরিদা আখতারের কাছে ফোন করে ফরহাদ মজহার বলেন, ‘আমাকে ধরে নিয়ে যাচ্ছে। ওরা আমাকে মেরে ফেলবে।’ এ কথা বলেই তিনি ফোনটি কেটে দেন। নিখোঁজ হওয়ার সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তাৎক্ষণিক উদ্যোগ নিয়ে মোবাইল ফোন ট্র্যাকিং করে তার অবস্থান সম্পর্কে নিশ্চিত হয়। ১৯ ঘণ্টা পর যশোরের অভয়নগরে হানিফ পরিবহনের বাস থেকে তাকে উদ্ধার করে পুলিশ।

ব্রেকিংনিউজ/ এসএ