শিরোনাম:

‘খালেদা জিয়া পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
প্রকাশিত : মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী ২০১৮, ০২:৪৯
অ-অ+
‘খালেদা জিয়া পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী’
ফাইল ছবি; ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় ১০ম দিনের মতো যুক্তিতর্ক উপস্থাপন চলছে। যুক্তি উপস্থাপন করছেন খালেদা জিয়ার আইনজীবী সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ। 

এসময় তিনি বলেন, ‘এটা আসলে কোনো মামলাই না। এ রকম মামলা বিভিন্ন দেশে রাজনৈতিক নেতাদের ঘায়েল করার জন্য করা হয়ে থাকে। এখানেও তা-ই হয়েছে। এতে আমাদের নেত্রীর কোনো ক্ষতি হবে না; বরং তাঁর জনপ্রিয়তা বাড়বে। তিনিই হবেন বাংলাদেশের আগামী প্রধানমন্ত্রী।’

মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর বকশীবাজার আলীয়া মাদ্রাসায় স্থাপিত বিশেষ আদালতে যুক্তি উপস্থাপন শুরু হয়। আদালতে খালেদা জিয়া উপস্থিত আছেন।

আদালতে মওদুদ আহমেদ বলেন, ‘এই মামলার কোনও কাগজে উনার (খালেদা জিয়ার) সই নেই। ঘষামাজা করে এই মামলার বিচার কাজ চলছে, আসলে এভাবে মামলাটি চলতে পারে না। আজকে যে আইনে বিচার চলছে, এই আইনটি হচ্ছে আমাদের (বিএনপি) সময় করা। এই আইনটি অনেক গবেষণা করে আমরা করেছিলাম। কিন্তু আমরা দেখি এই আইনটি প্রয়োগ করা হয় শুধু বিরোধী দলের জন্য। যেমনটি করেছিলেন, ফখরুদ্দিন-মঈন ইউ আহমেদ, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিরুদ্ধে তারা ১৪টি মামলা দিয়ে ১১ মাস কারাগারে রেখেছিলেন। খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে চারটি মামলা দিয়ে ১২ মাসের বেশি সময় কারাগারে রাখা হয়েছিল।’

তিনি আরও বলেন, ‘মাইনাস টু ফর্মুলা করে ফখরুল ও মইন ঈউ আহমেদ ক্ষমতায় এসে দুই নেত্রীকে বিদেশে পাঠিয়ে দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু খালেদা জিয়া সেই সমঝোতায় আসেননি। শেখ হাসিনা ঠিকই সমঝোতা করে বিদেশে চলে গেলেন।’  

১৯ ডিসেম্বর জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার যুক্তি উপস্থাপন শুরু হয়। এ দিন রাষ্ট্রপক্ষ খালেদা জিয়াসহ সব আসামির সর্বোচ্চ শাস্তি চেয়ে যুক্তি উপস্থাপন শেষ করেন। এরপর ২০, ২১, ২৬, ২৭ ও ২৮ ডিসেম্বর এবং ৩ , ৪, ১০ ও ১১ জানুয়ারি খালেদার পক্ষে যুক্ত উপস্থাপন করেন তার আইনজীবীরা। 

ব্রেকিংনিউজ/ এসএ