শিরোনাম:

৫৭ ধারা বাতিলের দাবি

জেলা প্রতিনিধি, ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি
প্রকাশিত : সোমবার, ০৭ অগাস্ট ২০১৭, ০১:৩৭
অ-অ+
৫৭ ধারা বাতিলের দাবি
ছবি: ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি

কক্সবাজার: তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারা সংবিধান পরিপন্থী উল্লেখ করে এটি অবিলম্বে বাতিলের জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানিয়েছেন কক্সবাজারে কর্মরত সাংবাদিকেরা।

রবিবার (০৬ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১০টায় কোটহিল চত্বরে (পৌরসভার সামনে) তথ্য প্রযুক্তি আইনের (আইসিটি অ্যাক্ট) ৫৭ ধারা বাতিল, রেজিস্টার্ড সাংবাদিক ইউনিয়নের প্রতিনিধি সমন্বয়ে নবম ওয়েজ বোর্ড গঠন, বন্ধ মিডিয়া খুলে দেয়া এবং সাংবাদিক নির্যাতন ও হয়রানি বন্ধের দাবিতে ‘রাজপথে অবস্থান’ কর্মসূচিতে এ দাবি জানানো হয়।

এসময় বক্তারা বলেন, ‘তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুর অতি উৎসাহী ভূমিকায় ৫৭ ধারা নামের সংবিধান পরিপন্থী আইন করা হয়। এ আইনের কারণে আজ গণমাধ্যম তাদের স্বাধীন মত প্রকাশ করতে পারছেনা। গঠনমূলক সমালোচনা থেকে সরকার বঞ্চিত হচ্ছে। ৫৭ ধারার অপপ্রয়োগের কারণে অনেক নিরীহ কলম সৈনিক কারা ভোগ করেছে। অবিলম্বে এই কালো আইন বাতিল করা হোক।’

বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে রেজি নং-১৯৮৭) ও সাংবাদিক ইউনিয়ন কক্সবাজার (জেইউসি রেজি নং-২৫৭৫) এর উদ্যোগে রাজপথে অবস্থান কর্মসূচি পালিত হয়।

প্রবীণ সাংবাদিক মমতাজ উদ্দিন বাহারীর সভাপতিত্বে বক্তারা বলেন, ‘সাংবাদিকদের কল্যাণে কাজ করতে চাইলে সাংবাদিকদের লেখার স্বাধীনতা দিতে হবে। ৫৭ ধারার পরিবর্তে সরকার নতুন আইনে ১৯-২০ ধারা করার চেষ্টা করলে আমরা সেটাও মেনে নেব না।’

উল্লেখ্য, ৫৭ ধারায় বলা হয়েছে- ওয়েবসাইটে প্রকাশিত কোনো ব্যক্তির তথ্য যদি নীতিভ্রষ্ট বা অসৎ হতে উদ্বুদ্ধ করে, এতে যদি কারও মানহানি ঘটে, রাষ্ট্র বা ব্যক্তির ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়, তা হবে অপরাধ। এর শাস্তি অনধিক ১৪ বছর কারাদণ্ড এবং অনধিক এক কোটি টাকা জরিমানা।

২০০৬ সালে হওয়া ওই আইন ২০০৯ ও ২০১৩ সালে দুই দফা সংশোধন করা হয়। সর্বশেষ সংশোধনে সাজা বাড়িয়ে ১০ বছর থেকে ১৪ বছর কারাদণ্ডের বিধান করা হয়। আর ৫৭ ধারার অপরাধকে করা হয় অজামিনযাগ্য।

এই ধারা বাতিল না করা পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়ে বক্তারা আরও বলেন, ‘সাংবাদিকরা যেখানে নির্যাতিত হবে, নিগৃহীত হবে সেটা যেই মহল থেকেই হোক না কেন প্রতিবাদ হবে। ৫৭ ধারা বাতিল না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।’

এতে বক্তব্য দেন- কক্সবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও দৈনিক রূপালী সৈকতের সম্পাদক ফজলুল কাদের চৌধুরী, কক্সবাজার প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা প্রবীণ সাংবাদিক এসএম আমিনুল হক চৌধুরী, দৈনিক দিনকালের স্টাফ রিপোর্টার নুরুল ইসলাম হেলালী, বাংলাদেশ সংবাদপত্র এজেন্ট কল্যাণ এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ হাশিম, সাংবাদিক ইউনিয়ন কক্সবাজার এর সাধারণ সম্পাদক হাসানুর রশীদ, দৈনিক সকালের কক্সবাজার এর সম্পাদক ফরহাদ ইকবাল, নির্বাহী সম্পাদক মহসীন শেখ, ক্রীড়া লেখক সমিতির সভাপতি এমআর মাহবুব, বন ও পরিবেশ সংগঠক মুহাম্মদ উর রহমান মাসুদ, কক্সবাজার নিউজ ডট কম (সিবিএন) এর বার্তা সম্পাদক ইমাম খাইর ও উপকূলীয় সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি শ ম ইকবাল বাহার চৌধুরী প্রমুখ।

সাংবাদিক সৈয়দ আলম ও আজিজ রাসেলের যৌথ পরিচালনায় এতে উপস্থিত ছিলেন- দৈনিক নয়া দিগন্তের কক্সবাজার প্রতিনিধি গোলাম আজম খান, মোহনা টিভির কক্সবাজার প্রতিনিধি আমানুল হক বাবুল, সাংবাদিক ইউনিয়ন কক্সবাজার এর যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এম ইব্রাহিম খলিল মামুন, কক্সবাংলার সম্পাদক চঞ্চল দাশ গুপ্ত, উখিয়া নিউজের সম্পাদক ওবায়দুল হক আবু চৌধুরী, কক্সবাজার টাইমস এর নির্বাহী সম্পাদক ইসলাম মাহমুদ, কক্সবাজার খবরের সম্পাদক আনোয়ার হাসান চৌধুরী, দৈনিক আমাদের কক্সবাজার এর চিফ রিপোর্টার আতিকুর রহমান মানিক, দৈনিক সকালের কক্সবাজার এর চিফ রিপোর্টার শাহেদ ইমরান মিজান, সংবাদকর্মী রফিকুল ইসলাম সোহেল ও জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

ব্রেকিংনিউজ/এমএস