শিরোনাম:

‘সুন্দরবন ধ্বংস করে উন্নয়ন জনস্বার্থের পক্ষে যায় না’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
প্রকাশিত : সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ১০:১০
অ-অ+
‘সুন্দরবন ধ্বংস করে উন্নয়ন জনস্বার্থের পক্ষে যায় না’

অবিলম্বে রামপালের কয়লাভিত্তিক তাপ বিদ্যুৎ প্রকল্প বাতিলের দাবি জানিয়েছেন তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির নেতারা।

তারা বলেছেন, ‘উন্নয়নের নামে এই প্রকল্প সুন্দরবনকে ধ্বংস করবে। সুন্দরবন ও প্রাণ-প্রকৃতি ধ্বংস করে উন্নয়ন জনস্বার্থের পক্ষে যায় না।’

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক বিক্ষোভ সমাবশে তারা এ কথা বলেন।

এ সময় অবিলম্বে বঙ্গোপসাগরে গ্যাস অনুসন্ধানে জাতীয় সক্ষমতার বিকাশ, রাষ্ট্রায়ত্ব বিদ্যুৎ খাত রক্ষা, জাতীয় কমিটির বিকল্প প্রস্তাবনা নিয়ে আলোচনা ও ফুলবাড়ীতে জাতীয় কমিটির নেতাদের নামে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারেরও দাবি জানান সংগঠনটির নেতারা। একইসঙ্গে এসব দাবি বাস্তবায়নে আগামী ৯ মার্চ খুলনায় উপকূলীয় কনভেনশনের ঘোষণা দেয়া হয়।

সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ, রুহিন হোসেন প্রিন্স, মোশরেফা মিশু বক্তব্য রাখেন। 

এ সময় অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, ‘সরকার জনগণের স্বার্থরক্ষা না করে দেশি-বিদেশি লুটেরা গোষ্ঠীর স্বার্থরক্ষায় ব্যস্ত। দেশ-বিদেশের সকল তথ্য গবেষণা ও প্রবল জনমত সত্তে¡ও সরকার এখনও সুন্দরবনবিনাশী রামপাল প্রকল্প নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে।’

তিনি শিল্প ও কৃষিসহ সকল ঘরে সুলভে পরিবেশবান্ধব বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য জাতীয় কমিটির বিকল্প প্রস্তাবনা তুলে ধরে বলেন, ‘সরকারের ব্যয়বহুল-ঋণনির্ভর-পরিবেশধ্বংসী বিদ্যুৎ মহাপরিকল্পনার বিপরীতে এই প্রস্তাবনা। সরকার জনস্বার্থের পক্ষে হলে অবিলম্বে এই প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা শুরু করবেন, এটি আমাদের প্রত্যাশা।’

তিনি বলেন,‘সুন্দরবন ধ্বংস করে, দেশের মানুষের স্বার্থ জলাঞ্জলি দিয়ে কোনো উন্নয়ন হতে পারে না। যে উন্নয়ন মানুষের কল্যাণের বিপরীতে প্রাণ-প্রকৃতি ধ্বংস করে তা রক্ষায় জনগণকেই এগিয়ে আসতে হবে।’

ব্রেকিংনিউজ/এএইচএস/এনএআর