Ads-Top-1
Ads-Top-2

লোহাগাড়ায় হাসপাতাল প্রাঙ্গনে সন্তান প্রসব: চিকিৎসক-নার্সকে তলব

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১১ জুন ২০১৮, সোমবার
প্রকাশিত: 05:18:00

দুর্ব্যবহার করে রোগী তাড়িয়ে দেয়ার পর হাসপাতাল প্রঙ্গনে সন্তান প্রসব ও কিছুক্ষণের মধ্যেই সেই নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনায় চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডা. আব্দুল্লাহ আল মামুন ও সিনিয়র নার্স ছায়া চৌধুরীকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ১ জুলাই তাদের স্বশরীরে হাজির হয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।

এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে সোমবার (১১ জুন) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ রুল এ আদেশ দেন। 

একইসঙ্গে ভুক্তভোগী মরিয়ম বেগমকে চিকিৎসা এবং নবজাতকের জীবন রক্ষায় হাসপাতালের ব্যর্থতা কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুলও করেছেন হাইকোর্ট। সংশ্লিষ্ট ডাক্তার ও নার্সদেরকে মৃত নবজাতকের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না তাও জানতে চাওয়া হয়েছে। 

চার সপ্তাহের মধ্যে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সচিব, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক, বাংলাদেশ মেডিকেল ও ডেন্টাল কাউন্সিলের সভাপতি ও সেক্রেটারি এবং সিভিল সার্জনসহ সংশ্লিষ্ট নয়জনকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ। তিনি বলেন, ‘শুনানিকালে আদালত বলেন হাসপাতালের দায়িত্ব চিকিৎসা দেওয়া। কিন্তু তারা এ ধরনের আচরণ করতে পারে না।’

ঘটনার বিবরণীতে জানা যায়, গত ৯ মে রাত সাড়ে ১০টায় প্রসব বেদনা নিয়ে লোহাগাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান পুঁটিবিলা গৌড়স্থান এলাকার দিনমজুর মহররম মিয়ার স্ত্রী মরিয়ম বেগম। কিন্তু সেখানে দুর্ব্যবহার করে রোগী তাড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠে নার্স ছায়া চৌধুরীর বিরুদ্ধে। পরক্ষণেই রোগী হাসপাতালের প্রাঙ্গনে বাচ্চা প্রসব করেন। তবে কিছুক্ষণের মধ্যেই সেই নবজাতক মারা যায়।

এরপর ঘটনাটি বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত হয়। সংবাদপত্রে প্রকাশিত প্রতিবেদন যুক্ত করে গত ১০ জুন হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে রিটটি দায়ের করা হয়। সেই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত উক্ত আদেশ দেন। 

ব্রেকংনিউজ/এমকে/এইচএ

Ads-Sidebar-3
Ads-Sidebar-3
Ads-Sidebar-3
সর্বশেষ খবর
Ads-Sidebar-3
Ads-Top-1
Ads-Top-2