শিরোনাম:

কেউ চাইলেই বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন করতে পারে না: কুবি উপাচার্য

জাহিদুল ইসলাম, কুবি প্রতিনিধি
৯ আগস্ট ২০১৮, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: 9:24
কেউ চাইলেই বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন করতে পারে না: কুবি উপাচার্য

‘কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়কে (কুবি) বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় করা হবে’- পরিকল্পনা মন্ত্রীর এমন বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মিলিত সাংগঠনিক জোটসহ সাধারণ শিক্ষার্থীরা। তবে এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের সাথে কথা বলে যানা যায়, তার সাথে এ ধরনের কোন কথাই হয় নি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরীর কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন নিয়ে আমার সাথে কারো কোনো কথা হয়নি। আর বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ না চাইলে নাম পরিবর্তন কিভাবে হবে? যদি এ ধরনের কোনো সিদ্ধান্ত নিতে হয়, তবে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকল সদস্যদের সাথে আলোচনা করেই সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। কেউ চাইলেই তো আর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন করতে পারে না।’

উল্লেখ্য, গত সোমবার (০৬ আগস্ট) কুমিল্লার স্থানীয় একটি পত্রিকায় ‘কুবিকে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় করা হবে’ এই শিরোনামে মাননীয় পরিকল্পনা মন্ত্রীর বরাত দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত সংবাদ থেকে জানা যায়, কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়েরর একটি অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তনে প্রচেষ্টার কথা বলেন।

এই বক্তব্যের প্রতিবাদে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় সাংগঠনিক জোটের দেয়া এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় ‘পরিকল্পনা মন্ত্রীর এই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে, আমরা কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা বিব্রত এবং উদ্বিগ্ন। 'কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়' অস্তিত্বের নাম। বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তনের সিন্ধান্ত কোনো ভাবেই সাবেক ও বর্তমান শিক্ষার্থীরা মেনে নেবে না। এমতাবস্থায় মাননীয় মন্ত্রীর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তন বিষয়ে বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছে কুবি সম্মিলিত সাংগঠনিক জোট।’

প্রেস বিজ্ঞাপ্তিতে আরো বলা হয়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম পরিবর্তনের প্রচেষ্টা থেকে বিরত থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক উন্নয়নে সহযোগিতা করার জন্য আহবান জানাচ্ছে সম্মিলিত সাংগঠনিক জোট।

এছাড়া এমন সংবাদ শোনার পরে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যদের  মধ্যে এক চাপা ক্ষোভ ও অসন্তোষ কাজ করছে। সবই চায় পরিকল্পনা মন্ত্রী তার বক্তব্য প্রত্যাহার করে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নতির দিকে নজর দিবে।

ব্রেকিংনিউজ/এসএএফ

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2