শিরোনাম:

খাশোগিকে করাত দিয়ে টুকরো টুকরো করা হয়: নিউইয়র্ক টাইমস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১১ অক্টোবর ২০১৮, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: 9:00 আপডেট: 12:09
খাশোগিকে করাত দিয়ে টুকরো টুকরো করা হয়: নিউইয়র্ক টাইমস
ছবি: সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগি

সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগি নিখোঁজের ঘটনায় আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। যুবরাজ সালমানের কট্টর সমালোচক প্রথিতযশা এই সাংবাদিক ২ অক্টোবর ২০১৮ তারিখে ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেট ভবনে প্রবেশের পর থেকে নিখোঁজ রয়েছেন। 

তুরস্কের কর্মকর্তারা বলছেন, কনস্যুলেটের ভেতরে সৌদি থেকে আসা এজেন্টরা তাকে হত্যা করেছে। তবে ওই দাবি প্রত্যাখ্যান করলেও জামাল খাশোগির ব্যাপারে কোনও সদুত্তর দিতে ব্যর্থ হয়েছে রিয়াদ। 

এদিকে, সৌদি আরব থেকে নির্বাসিত সাংবাদিক ও কলামিস্ট জামাল খাশোগি সম্পর্কে গা শিউরে ওঠা খবর দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্য দ্য নিউইয়র্ক টাইমস পত্রিকা।

পত্রিকাটির খবরে বলা হয়, সৌদি রাজ পরিবারবিরোধী সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে দেশটির শীর্ষ নেতাদের নির্দেশে হত্যা করা হয়েছে। এতে বলা হয়, সৌদি আরব থেকে তুরস্কের ইস্তাম্বুলে গিয়ে ১৫ জনের একটি ঘাতক টিম ওই হত্যা মিশনে অংশ নেয়। 

ঘাতক টিম সৌদি আরব থেকে ইস্তাম্বুলে পৌঁছেই দুটি ইন্টারন্যাশনাল হোটেলে ওঠে। সেখান থেকে সরাসরি ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে চলে যায়।

সাংবাদিক খাশোগি কনস্যুলেটে পৌঁছার আগেই তারা হত্যার জন্য সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করে। খাশোগি সেখানে প্রবেশের পর তারা তাকে হত্যা করে। হত্যার পর তার মৃতদেহ টুকরো টুকরো করে ফেলা হয়।

পত্রিকাটি লিখেছে, ঘাতক দলে একজন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ ছিলেন। তিনি সঙ্গে করে একটি করাত নিয়ে এসেছিলেন। ওই করাত দিয়েই তাকে টুকরো টুকরো করা হয়। হত্যা মিশন শেষ হতে দুই ঘণ্টা সময় লেগেছে। মিশন শেষে ঘাতকরা দ্রুত তুরস্ক ত্যাগ করে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চলে যায়।

দুটি প্রাইভেট বিমানে করে ঘাতকরা তুরস্কে গিয়েছিল।

আমেরিকায় স্বেচ্ছা-নির্বাসনে থাকা জামাল খাশোগি তার তুরস্কে থাকা বান্ধবীকে বিয়ের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আনতে গত ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুল শহরের সৌদি কনস্যুলেটে যান। কিন্তু সেখান থেকে তিনি আর ফিরে আসেননি।

ব্রেকিংনিউজ/এনকে

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2