শিরোনাম:

ঘূর্ণিঝড় তিতলির আঘাতে নিহত ২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১১ অক্টোবর ২০১৮, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: 2:08
ঘূর্ণিঝড় তিতলির আঘাতে নিহত ২

ঘূর্ণিঝড় তিতলির আঘাতে ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য অন্ধ্র প্রদেশের শ্রীকাকুলাম জেলার পলাসায় দুইজন নিহত হয়েছেন। 

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড়টি বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর)  স্থানীয় সময় ভোর পাঁচটা দিকে অন্ধ্র প্রদেশ ও উড়িষ্যা উপকূলে প্রচণ্ড শক্তিতে আছড়ে পড়ে।

নয়াদিল্লিভিত্তিক সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া ও এনডিটিভি জানায়, ‘তিতলি’ আঘাত হানতেই উড়িষ্যার গোপালপুর, গানজাম, গজপতি, পুরি, খুর্দ ও জগতসিংপুর জেলা এবং অন্ধ্র প্রদেশের শ্রীকাকুলামসহ বেশ কিছু জেলায় শুরু হয় ভূমিধস।

ঝড়ের কারণে বৈদ্যুতিক ও টেলিফোন লাইন বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। রাস্তায় গাছপালা ও বৈদ্যুতিক খুঁটি উপড়ে পড়ায় অচল হয়ে পড়েছে যোগাযোগ ব্যবস্থা।

বঙ্গোপসাগরের উপরে ঘোরাফেরা করা গভীর নিম্নচাপটি শক্তি বাড়িয়ে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে। 

আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, প্রায় তিন থেকে চার ঘণ্টা ভূমিধস হয়েছে। বিভিন্ন স্থানে গাছপালা এবং বৈদ্যুতিক খুঁটি উপড়ে গেছে এবং কুচা এলাকায় বহু বাড়ি-ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, উড়িষ্যার গোপালপুরে আছড়ে পড়ার সময় ঝড়ের গতি ছিল প্রতি ঘণ্টায় ১০২ কিলোমিটার। অন্ধ্রপ্রদেশের শ্রীকাকুলামে এই গতিবেগ ছিল ১৪০- ১৬০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা।  

আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, ওড়িষ্যার গোপালপুর এবং অন্ধ্রপ্রদেশের কলিঙ্গপত্তনমে ঘণ্টায় ১৪৫ কিলোমিটার বেগে আছড়ে পড়ার কথা তিতলির। আগামী ১৮ ঘণ্টায় আরও শক্তি বাড়বে ওই ঘূর্ণিঝড়ের।

তিতলির প্রভাবে শুক্রবার (১১ অক্টোবর) গঞ্জাম, গজপতি, পুরী, জগৎসিংহপুর, কেন্দ্রাপড়া, খুরদা, নয়াগড়, কটক, জাজপুর, ভদ্রক ও বালেশ্বরে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস।

ব্রেকিংনিউজ/এনকে

Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Sidebar-1
Ads-Bottom-1
Ads-Bottom-2