সংবাদ শিরোনামঃ

রংপুরে চোর সন্দেহে শিশুসহ ৬ জনকে পেটালো আ.লীগ নেতা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, রংপুর
১০ জানুয়ারি ২০১৯, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: ০৭:১৮

রংপুরে চোর সন্দেহে শিশুসহ ৬ জনকে পেটালো আ.লীগ নেতা

রংপুরের পীরগাছা উপজেলার সদর ইউনিয়নের চন্ডিপুর গ্রামের স্থানীয় বাবু মিয়ার বাড়ি চুরির ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিচারের নামে ৯ বছরের শিশুসহ ৬জন যুবককে ঘরের দরজা বন্ধ করে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে।  স্থানীয় পীরগাছা চন্ডিপুরের আওয়ামী লীগ নেতা রেজাউল করিমের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উঠেছে। 

এসময় তার সঙ্গে আরও ৪জন তাদের মারধোর করে। পরে পীরগাছা থানা পুলিশ ওই শিশুসহ ৬জনকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) দুপুরে পীরগাছা উপজেলা চন্ডিপুরে ঘটনাটি ঘটেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানাগেছে, বুধবার (৯ জানুয়ারি) রাতে পীরগাছা উপজেলার সদর ইউনিয়নের চন্ডিপুর গ্রামের বাবু মিয়ার বাড়িতে চুরির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার দুপুরের চুরি করেছে সন্দেহে স্থানীয় শিশু টিপু (০৯), কাটুম (১৪) মাসুদ (১৪) সহ ৬ জনকে তাদের বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে আসে। তাদের ঘরের ভেতরে আটকে রেখে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা মো. রেজাউল করিমের কাছে বিচার দেন বাবু মিয়া। বাবু মিয়ার ধারণা ওরাই তার ঘরের জিনিস পত্র চুরি করেছেন। 

পরে বাবু মিয়ার বাড়িতে এসে গ্রাম্য মাতুব্বর ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা রেজাউল করিমসহ আরও ৪জনকে সঙ্গে নিয়ে ঘরের ভেতর তাদের ব্যাপক মারধোর করে। স্থানীয়রা বিষয়টি থানায় জানালে পুলিশ এসে তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

স্থানীয় সচেতন মহল জানান, শিশুরা যদি চুরি করে থাকেন, তাহলে তাদের বিচার করার জন্য আইন- আদালত আছে। এরা করার কে?  তাছাড়া অন্যায় ভাবে মারধর করেছে। 

এ ব্যাপারে পীরগাছা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ‘বিষয়টি জানার পরেই পুলিশ তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।’

ব্রেকিংনিউজ/এসআর/জেআই