সংবাদ শিরোনামঃ

লোকসভা নির্বাচনে চমক দেখাতে জোটবদ্ধ মায়াবতী-অখিলেশ

ভারত ডেস্ক
১২ জানুয়ারি ২০১৯, শনিবার
প্রকাশিত: ১০:৫২

লোকসভা নির্বাচনে চমক দেখাতে জোটবদ্ধ মায়াবতী-অখিলেশ

ভারতের আসন্ন লোকসভা নির্বাচন সামনে রেখে রাজ্যে রাজ্যে চলছে জোটবদ্ধ রাজনীতির নানা কৌশল। এই ধারাবাহিকতায় এবার উত্তর প্রদেশে জোট বাঁধলেন বহুজন সমাজবাদী পার্টির (বিএসপি) প্রধান মায়াবতী ও সমাজবাদী পার্টির (এসপি) অখিলেশ যাদব। কংগ্রেস যেন তাদের থেকে কোনও ধরনের ছাড় না পায় সে বিষয়ে একমত এই দুই হেভিওয়েট নেতা।

শনিবার (১২ জানুয়ারি) জোটবদ্ধ হওয়ার ঘোষণা দেন অখিলেশ যাদব ও মায়াবতী। 

অখিলেশ যাদব ২০১৭ সালের নির্বাচনে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বেঁধেছিলেন। কিন্তু সেই নির্বাচনে ভোটারদের আকর্ষণ করতে পারেনি ওই জোট। তাই এবার মায়াবতীর সঙ্গে জোট বেঁধেছে সমাজবাদী পার্টি। মায়াবতী আরও বলেছেন, সারা দেশে কংগ্রেসের মতো দলের সঙ্গে তারা আর জোটবদ্ধ হবেন না। গত বছর সমাজবাদী ও বিএসপির জোট থেকে দেখা গেছে, এতে করে দুই পক্ষই ভোটে লাভবান হয়।

অন্যদিকে অখিলেশ যাদব বলেছেন, ‘আমি আমার কর্মীদের বলতে চাই, মায়াবতীকে অপমান করলে তাতে আমাকেও অপমান করা হবে।’

এই নতুন জোট জানিয়েছে, আগামী নির্বাচনে ৮০টি আসনের মধ্যে ৭৬টি আসনে তারা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। এর মধ্যে ৩৮টি করে আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে বহুজন সমাজবাদী পার্টি ও সমাজবাদী পার্টি। কংগ্রেসকে ছেড়ে দেওয়া হবে মোটে ২টি আসন। নতুন জোট বলছে, তারা বিজেপিকে হারাতে চায়, কিন্তু কংগ্রেসকে কোনো সুবিধাও দিতে চায় না। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও বিজেপির সাধারণ সম্পাদক অমিত শাহর ঘুম কেড়ে নিতে চায় এই জোট।

কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) কড়া সমালোচনাও করেছে মায়াবতী। তিনি বলেন, কংগ্রেসের মতো বিজেপিও প্রতিরক্ষা খাতের দুর্নীতিতে দোষী। বর্তমানে ভারতের পরিস্থিতি ১৯৭৫-৭৭ সালে জারি করা জরুরি অবস্থার চেয়ে ভিন্ন কিছু নয়। একে ‘অঘোষিত জরুরি অবস্থা’ বলে দাবি করেন মায়াবতী।

তবে কিছুদিন আগে মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান ও ছত্তিশগড়ে অনুষ্ঠিত রাজ্যসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের সঙ্গে জোট বাঁধার সুর তুলেছিলেন মায়াবতী। আর এখন মায়াবতীর বক্তব্য, বিজেপি ও কংগ্রেস দুটি দলই নাকি সাপের মতো!

ব্রেকিংনিউজ/এসএসআর