সংবাদ শিরোনামঃ

আল্লামা শফীর বক্তব্য ‘ব্যক্তিগত অভিমত’: নওফেল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১২ জানুয়ারি ২০১৯, শনিবার
প্রকাশিত: ০৫:২৮ আপডেট: ১০:২৮

আল্লামা শফীর বক্তব্য ‘ব্যক্তিগত অভিমত’: নওফেল

মেয়েদেরকে স্কুল-কলেজে না পাঠাতে এবং পাঠালেও বড়জোর ক্লাস ফোর বা ফাইভ পর্যন্ত পড়ানোর যে পরামর্শ হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী দিয়েছেন তা তার ‘ব্যক্তিগত অভিমত’ বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

শনিবার (১২ জানুয়ারি) সকালে নগরীর চশমা হিলে পৈত্রিক বাড়িতে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

শফীর এই অভিমত যে রাষ্ট্রীয় নীতিতে প্রতিফলন ঘটবে এরকম মনে করার কোনও কারণ নেই জানিয়ে নওফেল বলেন, ‘আহমদ শফী ব্যক্তিগত অভিমত দিয়েছেন। দেশের একজন নাগরিক হিসেবে তিনি নিজের বিশ্লেষণ তুলে ধরেছেন।’

আল্লামা শফীর অভিমত বাংলাদেশের রাষ্ট্রনীতির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয় বলেও মনে করেন শিক্ষা উপমন্ত্রী। 

তিনি বলেন, ‘শ্রদ্ধা ও সম্মানের সাথেই বলব, আমরা যারা বাক স্বাধীনতার কথা বলছি, মনে রাখতে হবে আমাদের সংবিধানে সকলের সমান অধিকারের কথা বলা আছে। আমরা যেন বৈষম্যমূলক কোনও মন্তব্য না করি।’

নওফেল বলেন, ‘বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ধর্মনিরপেক্ষ রাজনৈতিক আদর্শে বিশ্বাস করে। এবং বাংলাদেশের সংবিধান ধর্মনিরপেক্ষ বাংলাদেশ সৃষ্টি করতে আমাদের বাধ্য করেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘পড়াশোনার মধ্যে সাম্প্রদায়িকীকরণ যদি করা হয় অদূর ভবিষ্যতে তা আমাদের জন্য বিপদজনক হয়ে দাঁড়াবে, এটা আমরা সকলেই বিশ্বাস করি।’

এর আগে গতকাল শুক্রবার জুমার নামাজের পর চট্টগ্রামের আল জামিআতুল আহলিয়া দারুল উলূম মুঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদরাসা প্রাঙ্গণে দেয়া এক বক্তব্যে আল্লামা শফী বলেন, ‘আপনাদের মেয়েদের স্কুল-কলেজে দেবেন না। ক্লাস ফোর বা ফাইভ পর্যন্ত পড়াতে পারবেন। আর বেশি যদি পড়ান... পত্র-পত্রিকায় দেখতেছেন আপনারা... মেয়েকে ক্লাস এইট, নাইন, টেন, এমএ, বিএ পর্যন্ত পড়ালে ওই মেয়ে কিছুদিন পর আপনার মেয়ে থাকবে না। তাই আপনারা আমার সাথে ওয়াদা করেন। বেশি পড়ালে আপনার মেয়েকে টানাটানি করে অন্য পুরুষ নিয়ে যাবে। এ ওয়াজটা মনে রাখবেন।’

তার এ ধরনের বক্তব্য ঘিরে দেশের বিভিন্ন মহলসহ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনার ঝড় বইছে। 

ব্রেকিংনিউজ/এমআর