সংবাদ শিরোনামঃ

‘অস্বস্তিতে’ পড়েছেন আলিস

স্পোর্টস ডেস্ক

১৩ জানুয়ারি ২০১৯, রবিবার
প্রকাশিত: ০৯:১১ আপডেট: ১০:২৬

‘অস্বস্তিতে’ পড়েছেন আলিস

টি-টোয়েন্টি অভিষেকে হ্যাটট্রিক করে আলোচনায় এসেছেন ঢাকা ডায়নামাইটসের অফ স্পিনার আলিস আল ইসলাম। দুর্দান্ত বোলিংয়ে অচেনা এই তরুণ অফ স্পিনার চলে এসেছেন আলোচনায়। আলিসের জ্বলে ওঠার ম্যাচে রংপুর রাইডার্স ২ রানে হেরে যায়।

ম্যাচ সেরা হন তিনি। কিন্তু তার বোলিং অ্যাকশন নিয়ে তোলা হয়েছে প্রশ্ন। আর সেটা যদি প্রমাণিত হয় তবে তার হ্যাটট্রিকে লেগে যাবে এক ফোঁটা কালি।

রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে দারুণ হ্যাটট্রিক করে ম্যাচ জেতান তিনি। ম্যাচ শেষে তার বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছে রংপুর রাইডার্স। বিপিএলের গভর্নিং কাউন্সিলের কাছে দিয়েছে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ। অভিযোগ পেয়েছেন ম্যাচ রেফারিও। আম্পায়ার্স রিপোর্টেও নাকি আলিসের বোলিং অ্যাকশনে ‘চাকিং'-এর নমুনা রিপোর্ট জমা দিয়েছে।

এখন ম্যাচ রেফারি দেবব্রত পালের ওপর নির্ভর করছে বিপিএলে অভিষেক ম্যাচেই হ্যাটট্রিক করা সাভারের স্পিনার আলিস আল ইসলামের খেলা না খেলা। রেফারির রিপোর্ট যদি আলিসের বিপক্ষে যায় তবে এবার আর বিপিএল খেলা হবে না তার। 

বিসিবি বোলিং অ্যাকশন রিভিউ কমিটির সদস্য নাসির উদ্দিন আহমেদ নাসু বলেন, ‘ আমমরা এখনও রিপোর্ট হাতে পায়নি। রিপোর্ট পেলে ১৪ দিনের মধ্যে আলিসকে টেস্টের জন্য আসতে হবে। সে পর্যন্ত খেলা চালিয়ে যেতে পারবে।’ 

বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের টেকনিক্যাল কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুসের পরিষ্কার জানান, ‘আমরা এমন একটা অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগ প্রমাণিত হলে এবারের বিপিএলে আর খেলা হবে না তার। অবৈধ অ্যাকশন প্রমাণিত হলে, অবশ্যই আমরা ব্যবস্থা নেব।’

আলিসের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে সাদা চোখে প্রশ্ন করার সুযোগ কম। কিন্তু তার মূল অস্ত্র ‘দুসরা’ বলে নাকি সমস্যা আছে। রংপুরের অভিযোগ দুসরার সময় কনুই ১৫ ডিগ্রির বেশি বাঁকে তার। প্রথম বিভাগেও নাকি তার বিরুদ্ধে চাকিংয়ের অভিযোগ ওঠে। তবে জালাল ইউনুস জানান, প্রথম বিভাগে কোনো ম্যাচ রেফারির এমন অভিযোগ রিপোর্ট তারা পাননি।

ব্রেকিংনিউজ/এনকে