বাংলা সনের শেষ ও প্রথম দিন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১৩ এপ্রিল ২০২০, সোমবার
প্রকাশিত: ০৫:০১ আপডেট: ০৫:২৫

বাংলা সনের শেষ ও প্রথম দিন

বিশ্ব মহামারি এই নভেল করোনা ভাইরাসে পৃথিবী থমকে পড়লেও সময় তার নিয়মে বয়ে চলছে। আজ চৈত্রের শেষ দিন। অর্থাৎ বাংলা বছরের শেষ দিন আজ। বাঙালির বহু আয়োজনে চৈত্রের এই দিনটাকে যেমন ধুমধামে বিদায় জানানো হয় ঠিক নববর্ষকে বরণ করে নেওয়ার প্রস্তুতিও থাকে তার চেয়ে শতগুণ বেশি। কিন্তু এবার সেটি হওয়ার জো নেই। এই বৈশ্বিক মহামারিতে কোনো উৎসব হবে না। 

এই মহামারি করোনাভাইরাসের জন্য যেমন হয়নি গত ২৬ মার্চ স্মৃতিসৌধে ফুল দেওয়া, গত রবিবার বিশ্বজুড়ে গির্জায় গির্জায় ইস্টার সানডে পালন হয়নি। তেমনি করে নববর্ষ পালনের কোনও উপায় থাকছে না।

এই চৈত্র সংক্রান্তির মূল আয়োজন থাকে গ্রামে। বৈশাখের মেলা চৈত্র সংক্রান্তিতেই শুরু হয়। কোথাও হয় চড়কপূজা। পার্বত্য চট্টগ্রাম ও দেশের নানা পাহাড়ি অঞ্চলে সংক্রান্তি উদযাপিত হয় সাড়ম্বরে। পাহাড়ে আজকের দিনেই হয় মূল উদযাপন বা বিজু। পাজন দিয়ে আপ্যায়ন করা হয় অতিথিদের। কিন্তু এবার তার কোনোটাই হচ্ছে না। এই হোম কোয়ারেন্টাইনের দিনে আমরা নতুন বছরও বরণ করে নিতে পারছি না। অথচ বরাবরই এই দিনে গ্রামে চৈত্রের শেষ দিনে চৌদ্দ রকমের শাক সংগ্রহ করে খাবার চল পালিত হয়ে আসছে। এই শাক সংগ্রহ দিয়েই নাকি প্রকৃতির গতি বোঝা যায়। সে আয়োজন এবার করতে পারছি না। তবে হয়তো সনাতন ধর্ম্বাবলম্বীরা বছরের এই দিনটি ঘরেই পুজো দেবেন। যতটুকু ঘরোয়া আয়োজন করা যায়। 

গ্রামীণ লোকদের কাছ থেকে শোনা কথা, দীর্ঘদিন ধরে ঋতুর ওপর নির্ভর করে আমাদের খাদ্য সংস্কৃতি নির্ধারিত হয়েছে। যেহেতু উৎসব মানেই খাবারের আধিক্য এখানেও তার কমতি নেই। তবে শেষদিনটি চৈত্রের রোগবালাই দূর করতে তিতাতেই শেষ হয়। নানা রকম শাক, সবজি থাকে এই তালিকায়। আর চৈত্রের শেষ দিন বাড়িতে থাকা গাছ থেকে অনেকেই আম সংগ্রহ রাখেন। বছরের প্রথম দিন সেটি ডাল দিয়ে রান্না করে কিংবা  টক বানিয়ে খাওয়ার চল আছে। বছরের শেষদিনে তিতা আর শুরুর দিনে টক খেলে রোগমুক্তি ঘটবে এ বিশ্বাস ঘরে ঘরে।

তবে গ্রাম ছাড়িয়ে শহরেও আঁচ এসেছে নতুন বছরের উৎস পালনের আমেজে। ছোটখাটো মেলা বসে শহরের আশপাশে। শহরের মাঝেও ইদানিং বড় বড়  মঙ্গলশোভাযাত্রা শুরুর আগে থেকেই চারুকলা ইনস্টিটিউটে দিন-রাত একাকার করে পালিত হয় নববর্ষ।

কিন্তু এবার কোনও উৎসবই পালিত হচ্ছে না। এই করোনা মহামারির জন্য দেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংবাদ সম্মেলনে বলেন,"এই বছর আমরা নববর্ষ পালন করছি না।" তাই আমরা নতুন বছরকে স্বাগতম জানাতে পারছি। কিন্তু সময়তো কারও জন্য অপেক্ষা করে না। তাই আমরা নতুন বছরকে স্বাগতম জানাই বা না জানাই কাল নববর্ষ।  সবাইকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা।  

ব্রেকিংনিউজ/এসআই/ এসএ 

bnbd-ads
breakingnews.com.bd
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা, ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫, ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা,
  ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫,
 ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি