ট্র্যান ভ্যাং সাও-এর ২টি কবিতা

শিল্প-সাহিত্য ডেস্ক
১২ জুলাই ২০২০, রবিবার
প্রকাশিত: ০৫:০০

ট্র্যান ভ্যাং সাও-এর ২টি কবিতা

স্ত্রীকে সন্তান প্রসবের জন্য নিয়ে যাওয়া

মে মাসের একটি সকালে আমি সন্তান জন্মদানের জন্য তোমাকে নিয়েছিলাম
বৃষ্টিময় ধানকাটার সময়
আমি খুশি হয়েছিলাম তুমি সহজেই প্রসব করেছিলে একটি পুত্র-সন্তান
রাস্তার দুধারের বৃক্ষসারি স্থির ভেজা
আকাশ পৃথিবী আর আমাদের পূর্বপুরুষদের 
ধন্যবাদ জানাতে মা একগুচ্ছ ধূপকাঠি জ্বালিয়েছিলেন

আমার স্ত্রী প্রসূতিশয্যায় শুয়ে নিঃশ্বাস ফেলছিল
তার বড় এবং গোলাকার পেট 
একজন মানুষ হিসেবে আমার কিছুই করার ছিলো না, আমি বাইরে দাঁড়িয়ে ছিলাম
আমি সিগারেট টানছিলাম আর উঁকি দিচ্ছিলাম
আমি কিছুই মনে করতে পারছিলাম না

দুটো ঊর্ধ্বমুখী ধাতব পেয়ালা একটি জলপাত্রের কাছে
কিছু নুড়িপাথর ঘরের চালের প্রান্তভাগে 
বৃষ্টি আর হবে না

আমি উবু হয়ে বসেছিলাম আমি উঠে দাঁড়িয়েছিলাম আমি একটি সিগারেট টেনেছিলাম
আমি পেছন আর সামনের দিকে তাকিয়েছিলাম
আমার স্ত্রী প্রসূতিশয্যায় শুয়ে নিঃশ্বাস ফেলছিল
তার বড় ও গোলাকার পেট
তার মুখের সামনে একটি উজ্জ্বল খোলা জানালা
কাছের বাগানের একটি কলাপাতা জলবিন্দুর পতন দেখিয়েছিল

আমি ঘরের ভেতর থেকে আসা দুজন নারীর কণ্ঠস্বর শুনতে পাচ্ছিলাম
থুয়ান আন স্ট্রিটে একটি ট্রাকের ইঞ্জিন অকস্মাৎ তীক্ষ্ণ আওয়াজ করে উঠলো
এবং একটি শিশুর ক্রন্দনধ্বনি

আমি প্রবেশদ্বারে পা বাড়ালাম
দুজন নারী আমাকে দেখলো এবং হাসলো
আমি বাড়ির পথে হাঁটলাম
পাতাগুলির ওপর ঝিরিঝিরি বাতাস-
আমি জোরে জোরে নিজেকে বললাম
কিছুক্ষণের জন্য রৌদ্র হবে না
 

আমি খাবার জন্য মাংস চাই

আমি একদিন মাংস খাওয়ার কথা নিজেই কল্পনা করি
জোরে হেসে উঠে আনন্দের সাথে বলি
একটি মাংসের টুকরো তার সাথে চর্বির একটি বড় খণ্ড
আমার গলা দিয়ে পিছলে নেমে যায়

আার দুই চোখ খুলে যায় প্রসারিত হয়ে
আমি আসন করে মেঝেতে বসেছি

অনেক মাংসে পূর্ণ একটি প্লেট আমার মুখের সামনে
সবুজ পেঁয়াজের দীর্ঘ ডালপালা ভাসছে তেলের মাঝে
হাতে ধরা চপস্টিকস মুখ দিয়ে চিবুচ্ছি
পাতার মধ্য দিয়ে সূর্য জ্বলছে
গ্রীষ্মের বিকেলে কোনও বাতাস নেই

আমি ঘুম থেকে উঠি এবং আমার গ্রীবায় আাঁচড় কাটি
নদীর জল লবণাক্ত 
আমি সরুগলির শেষপ্রান্তে গিয়ে ধূমপান করি
তারপর উচ্চস্বরে নিজেকে বলি
পরিবেশ শীতল করার জন্য আজ সন্ধ্যায় বইবে বজ্রসহ ঝড়ো হাওয়া


[কবি ট্র্যান ভ্যান সাও ভিয়েতনামের হু শহরে জন্মগ্রহণ করেন। প্রথম ইন্দোচীন যুদ্ধের সময় তার পিতা ফরাসিদের হাতে খুন হন। ভিয়েতনাম যুদ্ধের সময় ট্র্যান আন্ডারগ্রাউন্ড সংবাদপত্র ‘থানহান চ্যান মিং’ (আমেরিকার বিরুদ্ধে যুবকগণ) প্রকাশের কাজে অবদান রেখেছিলেন। তিনি ১৯৬৫ সালে জাতীয় মুক্তিফ্রন্টে যোগ দেন। নামের সঙ্গে ‘ভ্যাং সাও’ অংশটুকু তার ছদ্মনাম- যার অর্থ ‘হলুদ তারা’। ১৯৬৯ সালে তিনি ভিয়েতনাম যুদ্ধে আহত হন। যুদ্ধের সময় তিনি কমিউনিস্ট মতাদর্শে উদ্বুদ্ধ হন। ১৯৭২ সাল থেকে তাকে কালো তালিকাভুক্ত ও কারারুদ্ধ এবং তার পাণ্ডুলিপিগুলো বাজেয়াপ্ত করা হয়। তার এই কবিতাগুলো ইংলেজি থেকে অনুবাদ করেছেন শাশ্বত ভট্টাচার্য]

ব্রেকিংনিউজ/এমআর

bnbd-ads
breakingnews.com.bd
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা, ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫, ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা,
  ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫,
 ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি