খাদ্যগুদামে হয়রানিতে ধান ফেলে কৃষকের প্রতিবাদ

লালমনিরহাট প্রতিনিধি
৭ আগস্ট ২০১৯, বুধবার
প্রকাশিত: ০৯:১২

খাদ্যগুদামে হয়রানিতে ধান ফেলে কৃষকের প্রতিবাদ

ধান ক্রয়ে কৃষকদের হয়রানি ও ঘুষ গ্রহণের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেন লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার কৃষকরা।

বুধবার (৭ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১১টা থেকে লালমনিরহাট বুড়িমারী মহাসড়কের আদিতমারী উপজেলা খাদ্যগুদামের সামনে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন করেন তারা।

মানববন্ধনে অংশ নেয়া কৃষকরা জানান, ন্যায্যমূল্যে কৃষকের কাছ থেকে সরাসরি ধান ক্রয়ের লক্ষ্যে উপজেলা কৃষি বিভাগ কৃষকদের তালিকা প্রদান করেন। সেই তালিকা অনুযায়ী কৃষক প্রতি ৪৮০ কেজি ধান ক্রয় করার কথা। কিন্তু কৃষকের ধান ক্রয় না করে ঘুষের বিনিময়ে ব্যবসায়ীদের ধান ক্রয় শুরু করে আদিতমারী উপজেলা খাদ্যগুদাম কর্মকর্তা কাণিজ ফাতেমা। কৃষকরা ধান নিয়ে গুদামে গিয়ে জানতে পারেন তাদের ধান অনেক আগেই গুদামে ক্রয় হয়েছে। 

কেউ কেউ তালিকা মতে ধান নিয়ে গেলে গুদামের দারোয়ান চঞ্চল বিভিন্ন অজুহাতে হয়রানি করে টাকা দাবি করেন। ৪৮০ কেজি ধান বিক্রি করতে গুদামে পাঁচ শত থেকে হাজার টাকা ঘুষ গুনতে হয়। টাকা না দিলে ধান গুদামে যায় না। এমন কি ধান গেলেও বিল দেন না গুদাম কর্মকর্তা। ৪৮০ কেজি ধান গুদামে বিক্রি করতে দিনের পর দিন গুদামে ঘুরতে হয়। কৃষকদের গেটের বাইরে বের করে দিয়ে ব্যাবসাীয়দের ধান ক্রয় করে গুদাম কর্মকর্তা। প্রতিবাদ করলে মামলা দেয়ার হুমকি দেয়া হয়। কৃষকরা হয়রানি আর ঘুষ গ্রহণের প্রতিবাদ করায় মঙ্গলবার (৬ আগস্ট) থেকে ধান ক্রয় বন্ধ করে গুদাম কর্তৃপক্ষ। ফলে ধান বিক্রি অনিশ্চিত হয়ে পড়ে। আসন্ন ঈদ নিয়ে শ্বঙ্কিত কৃষকরা।

উপজেলা খাদ্যগুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি এলএসডি) কাণিজ ফাতেমার এমন হয়রানি আর ঘুষ গ্রহণের প্রতিবাদে এবং দ্রুত তাকে অপসারণের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেন ভুক্তভুগী কৃষকরা। এর আগে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে থেকে কৃষকরা একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে গুদামের সামনে মানববন্ধন করেন। এ সময় মহাসড়কে ধান ফেলে অর্ধ-ঘণ্টা লালমনিরহাট বুড়িমারী মহাসড়ক অবরোধ করেন। এতে উভয় পাশে শতাধিক যানবাহন আটকা পড়ে।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন- কমলাবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হেলাল ক্বারী, সারপুকুরের কৃষক আব্দুল বাকী, মহিষখোচার কৃষক নজরুল ইসলাম ম্যারাডোনা ও আব্দুল কাহার প্রমুখ।

ব্রেকিংনিউজ/জেআই