দেশে দারিদ্র্য বিমোচনে কৃষির অবদান বেশি : কৃষিমন্ত্রী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১২ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার
প্রকাশিত: ০৬:৩৭ আপডেট: ০৬:৩৮

দেশে দারিদ্র্য বিমোচনে কৃষির অবদান বেশি : কৃষিমন্ত্রী

বাংলাদেশে দারিদ্র্য বিমোচন, খাদ্য নিরাপত্তা এবং টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করতে কৃষির অবদান সবচেয়ে বেশি বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক।

তিনি বলেন, ক্রমে হ্রাস পাওয়া কৃষি জমি এবং ক্রমবর্ধমান জনগোষ্ঠীর চাহিদা মেটাতে নতুন নতুন উন্নত ফসলের জাত ও প্রযুক্তি সমূহ কৃষকদের কাছে দ্রুত পৌঁছাতে হবে।

শনিবার ( ১২ অক্টোবর) বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউ (বারি) এর  কাজী বদরুদ্দোজা মিলনায়তনে কেন্দ্রীয় বারি’র “গবেষণা পর্যালোচনা ও কর্মসূচি প্রণয়ন কর্মশালা-২০১৯” এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। কর্মশালায় সারা দেশ থেকে কৃষি বিশেষজ্ঞ ও কৃষি বিজ্ঞানীগণ অংশগ্রহণ করেন।

কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক বলেন, কৃষি বিজ্ঞানীদের নব নব আবিষ্কারের ফলে আজ কৃষির সাফল্য বিশ্ব স্বীকৃত। আধুনিক জ্ঞান-বিজ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে তারা কৃষিকে সমৃদ্ধ করেছেন। এগুলো একই সাথে দেশের খাদ্য ও পুষ্টির চাহিদা মিটাতে অনন্য ভুমিকা রাখছে। কৃষিতে ভালো ফলাফলের কারণেই দেশরত্ন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘সেরেস’ পদক পেয়েছেন।  

আব্দুর রাজ্জাক বলেন, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউ (বারি) এ প্রর্যন্ত ৫৫৮টি উচ্চ ফলনশীল বিভিন্ন ফসলের জাত উদ্ভাবন করেছে। এর মধ্যে ৩৫ টি হাইব্রিড ও ২২৩ অন্যান্য প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছে। ২০০৯ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত ২৪৪টি উচ্চ ফলনশীল উন্নত জাত ও হাইব্রিড এবং ২৫০টি উন্নত ফসল ব্যবস্থাপনা প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছে। 

হাওরাঞ্চল ও চরাঞ্চলের জন্য উপযোগী শস্য বিণ্যাস প্রণয়ন ও শস্য সংগ্রহোত্তর ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করতে হবে। সরকারের নানাবিধ সময়োপযোগী পদক্ষেপের কারণে উৎপাদন বেড়েছে ২ থেকে ৬ গুণ পর্যন্ত বলেও জানান কৃষিমন্ত্রী। 

মন্ত্রী বলেন, বারি আমাদের সীমিত জমিতে অধিক ফসল উৎপাদনের জন্য উচ্চ ফলনশীল ফসলের নতুন নতুন জাত, আধুনিক প্রযুক্তি উদ্ভাবন, পরিচর্যা ও সংরক্ষণ পদ্ধতি বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশ খাদ্য উৎপাদনে স্বয়সম্পূর্ণতা অর্জন করেছে। উচ্চ ফলনশীল জাত উদ্ভাবনের সাথে সাথে মাটির সুরক্ষার প্রতিও দৃষ্টি দিতে হবে। তবে পুষ্টি নিরাপত্তা এবং বিষমুক্ত খাদ্য উৎপাদনে আরো সমৃদ্ধি অর্জনে এগিয়ে যেতে হবে।

মন্ত্রী আরও বলেন, মাঠ পর্যায়ে ফসলের নানা প্রকার রোগ-বালাই সনাক্ত করে ভবিষৎ পরিকল্পনা গ্রহণ, অধিক হারে ফসল উৎপাদন করে দেশের খাদ্য ও পুষ্টি চাহিদা মিটিয়ে উৎপাদিত ফসলকে রপ্তানি মুখী করতে হবে।  

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. মোঃ আবুল কালাম আযাদের সভাপতিত্বে কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মো. আব্দুল মান্নান, কৃষি সচিব মোহাম্মদ নাসিরুজ্জামান। 

অনুষ্ঠানে কর্মশালার মূল বিষয়বস্তু উপস্থাপন করেন বারি’র পরিচালক (গবেষণা) ড. মোঃ আঃ বাহার ।

এর আগে মন্ত্রী বারি’র ল্যাব গুলো পরিদর্শন করেন। 

তিন ধাপে ৭ দিনের এই গবেষণা পর্যালোচনা ও কর্মসূচি প্রণয়ন কর্মশালার মাধ্যমে বিগত বছরের গবেষণা কার্যাবলীর বিশ্লেষণ ও পরবর্তী বছরের গবেষণা কর্মসূচি প্রণয়ন করা হয়ে থাকে, সে কারণে এই কর্মশালার গুরুত্ব অপরিসীম।

ব্রেকিংনিউজ/আরএইচ/এম

bnbd-ads
breakingnews.com.bd
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা, ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫, ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: মাইনুল ইসলাম
 শারাকা ম্যাক, ২ এইচ-প্রথম তলা,
  ৩/১-৩/২ বিজয় নগর, ঢাকা-১০০০
 টেলিফোন : ০২-৯৩৪৮৭৭৪-৫,
 ইমেইল : breakingnews.com.bd@gmail.com
 নিউজরুম হটলাইন : ০১৬৭৮-০৪০২৩৮, ০২-৮৩৯১৫২৪
 নিউজরুম ইমেইল : bnbdcountry@gmail.com, bnbdnews.reporter@gmail.com
© ২০১৯ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | ব্রেকিংনিউজ.কম.বিডি