এ কে খন্দকারের বই প্রত্যাহারের ঘোষণা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
৩ জুন ২০১৯, সোমবার
প্রকাশিত: ০৮:৩১

 এ কে খন্দকারের বই প্রত্যাহারের ঘোষণা
ফাইল ছবি

মুক্তিযুদ্ধের ডেপুটি চিফ অব স্টাফ (অব.) এয়ার ভাইস মার্শাল এ কে খন্দকার (বীর উত্তম) রচিত ‘১৯৭১: ভেতরে বাইরে’ প্রকাশের পর থেকেই ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগে সমালোচনা শুরু হয। সম্প্রতি বইটি থাকা বঙ্গবন্ধুর ভাষণ সংক্রান্ত তথ্যের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন এ কে খন্দকার। এবার বাজার থেকে বইটি  বইটি প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে প্রকাশনা সংস্থা প্রথমা। 

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে  প্রতিষ্ঠানটি এই তথ্য জানায় । 

প্রথমা প্রকাশন-এর সিইও জাফর আহমেদ রাশেদ জানান, এ কে খন্দকার এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তার বইয়ের একটি অনুচ্ছেদে ভুল রয়েছে বলে বঙ্গবন্ধু ও দেশবাসীর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন। সেই বিবৃতিতে প্রথমা প্রকাশন-এর কাছেও বইটি পরিমার্জন করে প্রকাশের প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছেন তিনি। প্রথমা প্রকাশনা মনে করে, একজন লেখকের সম্পূর্ণ অধিকার রয়েছে তার বই সংশোধন, পরিমার্জন ও পরিবর্ধনের। লেখকের দাবির প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে রবিবার বইটি প্রত্যাহার করে নিয়েছে প্রথমা।

এর আগে শনিবার (১ জুন) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে  এক সংবাদ সম্মেলনে এ কে খন্দকার তার লেখা ‘ ১৯৭১: ভেতরে বাইরে’ বইয়ে ভুল তথ্যের জন্য ক্ষমা চান। 

বইটির ৩২ নম্বর পৃষ্ঠার একটি স্থানে লেখা ছিল, ‘‘বঙ্গবন্ধুর এই ভাষণেই যে মুক্তিযুদ্ধ আরম্ভ হয়েছিল তা আমি মনে করি না। এই ভাষণের শেষ শব্দগুলো ছিল ‘জয় বাংলা, জয় পাকিস্তান’। তিনি যুদ্ধের ডাক দিয়ে বললেন ‘জয় পাকিস্তান’.......।”

এই তথ্যের জন্যই ক্ষমা চান আওয়ামী লীগের সাবেক এই মন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘‘এই অংশটুকুর জন্য দেশপ্রেমিক অনেকেই কষ্ট পেয়েছেন বলে আমি বিশ্বাস করি। এই তথ্যটুকু যেভাবেই আমার বইতে আসুক না কেন, এই অসত্য তথ্যের দায়ভার আমার এবং বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণে কখনও ‘জয় পাকিস্তান’ শব্দ দুটি বলেননি। তাই আমার বইয়ের ৩২ নম্বর পৃষ্ঠার উল্লেখিত বিশেষ অংশ সম্বলিত পুরো অনুচ্ছেদটুকু প্রত্যাহার করে নিচ্ছি এবং একই সঙ্গে জাতির কাছে ও বঙ্গবন্ধুর বিদেহী আত্মার কাছে ক্ষমা চাচ্ছি।’’

ব্রেকিংনিউজ/জেআই