bnbd-ads
bnbd-ads

ঢাবিতে প্রতিবন্ধী শিক্ষা ও পুনর্বাসন সংস্থার পথচলা শুরু

ঢাবি করেসপন্ডেন্ট
২২ মে ২০১৯, বুধবার
প্রকাশিত: ০৯:৪৮

ঢাবিতে প্রতিবন্ধী শিক্ষা ও পুনর্বাসন সংস্থার পথচলা শুরু

‘হাতে হাত রেখে এগিয়ে যাই উন্নয়নের দিকে’ স্লোগান নিয়ে শুরু হলো ‘প্রতিবন্ধী শিক্ষা ও পুনর্বাসন সংস্থা’র পথচলা। এর মাধ্যমে সারা দেশের প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়,  চাকরি ও পুনর্বাসন নিয়ে কাজ করতে এ সংগঠনটির প্রতিষ্ঠা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু স্বপ্নবাজ প্রতিবন্ধী তরুণ।

দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী ও হাজী মুহাম্মদ মুহসীন হল ছাত্র সংসদের সমাজ সেবা সম্পাদক আবুল হোসেনের সভাপতিত্বে বুধবার (২২ মে) বিকেলে হাজী মুহাম্মদ মুহসীন হলে উদ্বোধন ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন এ সংগঠনের শুভ  উদ্বোধন করেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আইনুল ইসলাম, সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজের প্রভাষক মলয় কুমার সাহা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাহদী আল মুহতাসিম নিবিড় উপস্থিত ছিলেন। 

উদ্বোধনী ভাষণে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন বলেন, ‘আজকে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী আবুল হোসেনের নেতৃত্বে যে সংগঠনটি যাত্রা শুরু করছে, দেশের প্রতিবন্ধীদের জন্য এটি একটি বড় প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করবে। আসলে তারা বোঝা নয়, তারা দেশের সম্পদ। প্রতিবন্ধী হয়েও তারা আজ ঢাকা বিশ্বিবদ্যালয়ে পড়ছেন। অনেক উদ্যোগ গ্রহণ করছেন। দেশকে এগিয়ে নিতে তাদের বাদ দিয়ে উন্নয়ন কল্পনা করা যায় না।’

এ সময় তিনি সংগঠনটিকে এগিয়ে নিতে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

অনুষ্ঠানে অধ্যাপক ড. আইনুল ইসলাম বলেন, ‘প্রতিবন্ধী শব্দটির বিরূপ ব্যবহার সঠিক নয়। সবাই সৃষ্টিকর্তার সৃষ্টি। হয়তো তারা সামাজিকভাবে পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী। সমাজে তাদের সমান অধিকার রয়েছে। এই প্রতিষ্ঠানটিকে এগিয়ে নিতে আমাদের কাজ করতে হবে।’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ঢাকা বিশ্বিবদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মাহদী আল মুহতাসিম নিবিড় বলেন, ‘বাংলাদেশের সংবিধানে প্রতিবন্ধীদের সমান অধিকারের বিষয়টি নিশ্চিত করা রয়েছে। এতে সম-অধিকার, মানবসত্ত্বার মর্যাদা ও সামাজিক সাম্য প্রতিষ্ঠার অঙ্গীকার ব্যক্ত করা হয়েছে। সুতরাং জাতীয় উন্নয়নসহ  সকল কর্মকাণ্ডে প্রতিবন্ধীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে।’

সভাপতির ভাষণে আবুল হোসেন বলেন, ‘প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী হিসেবে আমি বাংলাদেশ ছাত্রলীগ থেকে হল সংসদ নির্বাচন করি। সেখান থেকে আমি বুঝতে পারি সারাদেশের প্রতিবন্ধীদের নিয়ে কাজ করতে হবে। প্রতিবন্ধী হয়েও নির্বাচনে জয়ী হতে পেরেছি। আমি  দেশের  পিছিয়ে পড়া প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠীর জন্য কিছু করতে চাই। বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে চাই। আমাদের লেখাপড়া শেষ হলে বেকার থাকতে হয়। আমরা প্রতিবন্ধীদের চাকরি, পুনর্বাসন ও তাদের অধিকার নিয়ে কাজ করতে চাই।’

ব্রেকিংনিউজ/ইএইচ/জেআই

bnbd-ads
MA-in-English
bnbd-ads