মলম পার্টির খপ্পরে জাবি শিক্ষার্থী

জাবি করেসপন্ডেন্ট
১১ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: ০৪:০০

মলম পার্টির খপ্পরে জাবি শিক্ষার্থী

মলম পার্টির খপ্পরে পরে সর্বশান্ত হয়েছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ইতিহাস বিভাগের ৪৪তম ব্যাচের আল আমিন কোরাইশী। তার কাছে থাকা একটি ল্যাপটপ, মোবাইল, ঘড়ি ও সাথে থাকা কিছু টাকা নিয়ে যায় মলম পার্টির সদস্যরা।

সোমবার (১০ জুন) রাত সাড়ে ১১টায় ক্যাম্পাসে আসার উদ্দেশ্যে এয়ারপোর্ট থেকে আশুলিয়া ক্লাসিক বাসে করে আসার পথে এই ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, ঈদের ছুটি কাটিয়ে হবিগঞ্জ ক্যাম্পাসে ফিরছিলেন আল আমিন। রাত সাড়ে ১১টার দিকে টঙ্গি স্টেশনে ট্রেন থেকে নেমে আশুলিয়া ক্লাসিক নামের একটি বাসে ওঠে। বাসে শসা কিনে খাওয়ার পর জ্ঞান হারিয়ে ফেলে সে। তারপর মলম পার্টির সদস্যরা তাকে বাস থেকে আশুলিয়া ব্রিজের কাছে ফেলে দেয়। 

মঙ্গলবার (১১ জুন) ভোরের দিকে দুজন মোটরসাইকেল ওই পথ দিয়ে যাওয়ার সময় তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে আশুলিয়া মা ও শিশু হাসপতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে খবর পেয়ে আল আমিনের বন্ধুরা হাসপাতালে যায়। তারপর দুপুর ১২টার কিছু পর তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারে নিয়ে আসে। প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে জ্ঞান ফিরে আসে তার। তবে এখন উঠে বসতে কিংবা হাঁটতে পারছেন না। 

এদিকে নিয়ে যাওয়া মোবাইলে কল দিয়ে জানা গেছে, ফোনটি এখন যার কাছে আছে তিনি ২০০ টাকায় ফোনটি কিনেছেন এবং যাদের কাছ থেকে তিনি ফোনটি কিনেছেন, তাদেরকে তিনি দেখিয়ে দিতে পারবেন। যদি পুলিশ নিয়ে যাওয়া যায়। 

ভুক্তভোগী আল আমিনের  কোরাইশির মতে, এই ঘটনায় আশুলিয়া ক্লাসিকের ওই বাসের হেল্পার, ড্রাইভার জড়িত থাকতে পারে। এই ঘটনায় আল আমিন আশুলিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে।

আশুলিয়া থানার ওসি রেজাউল করিম জানিয়েছে ঘটনার সুষ্ঠ তদন্তের জন্য এসআই জামিনুরকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

ব্রেকিংনিউজ / এমএ/ এসএ