আলোচিত আবরার হত্যায় আরও একজন গ্রেফতার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
২৮ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার
প্রকাশিত: ১২:৫৪ আপডেট: ০৩:০৯

আলোচিত আবরার হত্যায় আরও একজন গ্রেফতার

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় মাহমুদ নামে আরও একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রবিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বাংলামোটর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সোমবার গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান ঢাকা মহানগর পুলিশের ডিসি (মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স বিভাগ) মাসুদুর রহমান। 

তিনি জানান, আবরার হত্যা মামলার এজাহারে মাহমুদ সেতুর নাম না থাকলেও কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় ইতোমধ্যে জবানবন্দি ও বিভিন্ন সাক্ষ্যপ্রমাণে হত্যাকাণ্ডে তার সংশ্লিষ্টা পাওয়ায় তাকে ওই মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে। 

এ নিয়ে আবরার হত্যা মামলায় এখন পর্যন্ত ২১ জনকে গ্রেফতার করা হলো।

গ্রেফতারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মাহমুদ সেতু জানিয়েছেন, সে বুয়েটের ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থী। ক্যামিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ থেকে চলতি বছরের এপ্রিলে বিএসসি সম্পন্ন করেন। সেতু শেরেবাংলা হলের ২০১২ নম্বর রুমে থাকতো। সে মানিকগঞ্জের একটি ওষুদ কোম্পানির ক্যামিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কাজ করছিল। 

ইতোমধ্যে আবরার হত্যা মামলায় এজাহারভুক্ত ৮ আসামি ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। তারা হলেন- অনিক সরকার, ইফতি মোশাররফ, মেহেদী হাসান ওরফে রবিন, মেফতাহুল ইসলাম, মুজাহিদুল, মনিরুজ্জামান মনির, খন্দকার তাবাখখারুল ইসলাম তানভীর ও এ এস এম নাজমুস সাদাত।

গেল ৫ অক্টোবর বিকেলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন ফাহাদ। এর জের ধরে ৬ অক্টোবর রাতে বুয়েটের শেরে-বাংলা হলে নিজের ১০১১ নম্বর কক্ষ থেকে তাকে ডেকে নিয়ে ২০১১ নম্বর কক্ষে বেধড়ক পেটানো হয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পিটুনির সময় নিহত আবরারকে ‘শিবিরকর্মী’ হিসেবে চিহ্নিত করার চেষ্টা চালায় খুনিরা। নিহত আবরার বুয়েটের তড়িৎ কৌশল বিভাগের মেধাবী ছাত্র ছিলেন। 

এদিকে আবরার হত্যার পরদিন চকবাজার থানায় তার বাবা বরকত উল্লাহর করা মামলায় এখন পর্যন্ত ২০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।এরমধ্যে ১৬ জন মামলার এজাহারভুক্ত আসামি। 

ব্রেকিংনিউজ/এমআর

bnbd-ads