তিল ধারণেরও ঠাঁই নেই সদরঘাটেও

স্টাফ করেসপন্ডেপন্ট
১০ আগস্ট ২০১৯, শনিবার
প্রকাশিত: ০৬:৫৭

তিল ধারণেরও ঠাঁই নেই সদরঘাটেও

পরিবার-পরিজনের সাথে ঈদুল আজহা উদযাপন করতে নাড়িরটানে বাড়ি ফিরছে নগরবাসী। বাস ও রেলপথের পাশাপাশি জনস্রোত নেমেছে নৌপথেও। রাজধানীর সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে তিল ধারণের ঠাঁই নেই। নদীপথে বাড়ি ফিরতে দক্ষিণ বঙ্গের হাজার হাজার মানুষ ভিড় জামিয়েছে সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে।

গত দু’দিনের তুলনায় শনিবার (১০ আগস্ট) সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনালে ভিড় অনেক বেশি। পন্টুনেও পা ফেলা যাচ্চে না যাত্রীদের চাপে। পোশাক ও শিল্পকারখানা ছুটি হওয়ায় সদরঘাট টার্মিনালে যাত্রীর চাপ বাড়ছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা। এদিকে যাত্রীসেবা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে টার্মিনাল এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

শনিবার সকাল থেকে ঢাকা নদীবন্দর সদরঘাট টার্মিনালে রাজধানী ঢাকা ও আশপাশের এলাকার কর্মজীবী মানুষের ভিড় বাড়তি ভিড় ছিলো। বাড়তি চাপ থাকলেও প্রত্যেক যাত্রীকে নিরাপদে বাড়িতে পৌছে দেয়ার কথা জানিয়েছেন বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন (বিআইডব্লিউএ) কর্তৃপক্ষ।

ঈদুল আজহায় ঘরমুখো মানুষকে সেবা দিতে দুই শতাধিক লঞ্চ প্রস্তুত রাখার কথা জানিয়েছে (বিআইডব্লিউটিএ) ঢাকা নদী বন্দরের একটি সূত্র। এছাড়াও  দুর্যোগ মুহূর্তে যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেও নেওয়া হয়েছে নানা পদক্ষেপ। তবে দুর্যোগ মুহূর্তে লঞ্চ চলাচলে সতর্কতা সংকেট মেনে চলতে  বলা হয়েছে।

অতিরিক্ত যাত্রীদের বিষয়টি জানতে চাইলে নৌ নিরাপত্তা ও ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা বিভাগের যুগ্ম পরিচালক আলমগীর কবির ব্রেকিংনিউজকে বলেন,  ঈদের সময় লঞ্চে কোন মালামাল বহন করা হয় না। তাই কিছু যাত্রী অতিরিক্ত হলেও কোন সমস্যা হবে না।  দক্ষিণাঞ্চলের ৪৩টি রুটের ৭৫-৮০টি যাত্রীবাহী লঞ্চ ছেড়ে যাবে। সকল যাত্রীই নিরাপদে বাড়িতে পৌঁছাতে পারবে।

ব্রেকিংনিউজ/ আরএইচ/ এসএ 

bnbd-ads