বসুন্ধরায় আটকের পর রাজীবের মোহাম্মদপুরের বাসায় র‍্যাবের অভিযান

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
২০ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার
প্রকাশিত: ১২:৩৬ আপডেট: ১২:৪১

বসুন্ধরায় আটকের পর রাজীবের মোহাম্মদপুরের বাসায় র‍্যাবের অভিযান

চলমান ক্যাসিনো বিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে আত্মগোপনে থাকা ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তারেকুজ্জামান রাজীবকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে গ্রেফতারের পর মোহাম্মদপুরে তার নিজ বাসায় অভিযান চালাচ্ছে র‍্যাব।

শনিবার (১৯ অক্টোবর) রাতে ১১টার দিকে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার একটি বাসা থেকে আটকের পর রাত ১২টা ২০ মিনিটের দিকে মোহাম্মদপুরের শিয়া মসজিদ এলাকায় মোহাম্মদীয়া হাইজিং সোসাইটির ১ নম্বর রোডের ৩৩ নম্বর বাসায় অভিযান চালাচ্ছে র‍্যাব।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লে. কর্নেল সারওয়ার-বিন-কাশেম ব্রেকিংনিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, “বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিপরীত পাশের ৪নং সড়কের ৪০৪ নং বাসায় অভিযান চালিয়ে কাউন্সিলর রাজীবকে আটক করা হয়। আটকের পর তাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তার নিজ বাসা মোহাম্মদপুরে অভিযান চালানো হচ্ছে। অভিযান শেষে বিস্তারিত জানানো হবে।”

অবৈধ দখল, চাঁদাবাজি, এলাকায় মাস্তানি, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড, নিজস্ব লোক দিয়ে ট্রাক-লেগুনা স্ট্যান্ড ও অটোরিকশা থেকে চাঁদা নেওয়ার সঙ্গে কাউন্সিলর রাজীব জড়িত বলে অভিযোগ রয়েছে।

সূত্র জানায়, সদ্য বহিষ্কৃত কেন্দ্রীয় যুবলীগের দপ্তর সম্পাদক কাজী আনিসুর রহমানের মাধ্যমে এক কোটি টাকা দিয়ে পদটি নিয়েছেন তিনি।

এর আগে মতিঝিলের ইয়ংমেন্স ফকিরেরপুল ক্লাবে ক্যাসিনো চালানোর ঘটনায় ১৮ সেপ্টেম্বর গ্রেফতার করা হয় যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে। পরদিন কলাবাগান ক্লাব থেকে গ্রেফতার হন কৃষকলীগের নেতা শফিকুল আলম ফিরোজ। এর দুদিন পর নিকেতন থেকে গ্রেফতার করা হয় ঠিকাদার জি এম শামীমকে। তিনিও যুবলীগ নেতা হিসেবে পরিচয় দিতেন। পরে গ্রেফতার হন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট।

ব্রেকিংনিউজ/টিটি/এমজি