bnbd-ads
bnbd-ads

টাকার লোভে ছেলে হত্যার তথ্য গোপন বাবার!

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১৩ মার্চ ২০১৯, বুধবার
প্রকাশিত: ০৮:১১ আপডেট: ০৮:২৯

টাকার লোভে ছেলে হত্যার তথ্য গোপন বাবার!

২ লাখ টাকার বিনিময়ে আসামি আল-আমিনের (৩৮) ও শামীমের (৩৫) সঙ্গে হাত মিলিয়ে ছেলে হত্যার তথ্য গোপন করে বাবা নাজিমউদ্দিন। নিহত রুবেল বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেছে বলে প্রাথমিকভাবে দাবি করে রুবেলের বাবা নাজিমউদ্দিন। ঘটনার দিনই রুবেলের বাবা বাদী হয়ে খিলগাঁও থানায় অপমৃত্যু মামলা করে। মামলার প্রাথমিক অনুসন্ধানে ভিকটিম রুবেলের মাথায় আঘাতের চিহ্ন দেখা যায়।

বুধবার (১৩ মার্চ) সন্ধ্যায় র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে খিলগাঁও ইদারকান্দি গ্রামের চাঞ্চল্যকর রুবেল হত্যার এই রহস্য সাংবাদিকদের বলেন, র‍্যাব ৩-এর অধিনায়ক লেঃ কঃ এমরানুল হাসান।

তিনি বলেন, ‘মাথায় আঘাতের চিহ্ন পাওয়ার পর র‍্যাব রুবেলের বাবাকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করে। রুবেলের বাবা নাজিমুদ্দিন ভয় পেয়ে সত্য ঘটনা খুলে বলে। তিনি বলেন, তার পুত্র রুবেল বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যায়নি। তাকে প্রকৃতপক্ষে হত্যা করা হয়েছে।’

রুবেলের বাবা নাজিম উদ্দিনের বরাত দিয়ে র‍্যাব কর্মকর্তা বলেন, ‘তাদের দূর সম্পর্কের আত্মীয় শামীম ও আল আমিনের এর নির্মাণাধীন ঘরের চুরি করতে যায় রুবেল। এমন সময় টের পেয়ে শামীম ও আল আমিন রুবেলের মাথায় রড দিয়ে আঘাত করে। তখনই মারা যায় রুবেল।’

রুবেল মারা যাবার পর ভয় পেয়ে রুবেলের বাবা নাজিমউদ্দিনকে ডেকে পাঠান দুই ভাই শামীম ও আল আমিনকে। পরে ২ লাখ টাকা দেয়ার লোভ দেখিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যাবার নাটক সাজান তারা। টাকার বিনিময়ে পুত্র হত্যার তথ্য গোপন করতে রাজি হয় রুবেলের বাবা।

এমরানুল হাসান আরও জানান, ঘটনার সত্যতা যাচাই করতে, র‍্যাব আল আমিন (৩৮) ও শামীম (৩৫)কে আটক করে। পরবর্তীতে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে, তারা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে।

অন্যদিকে ভিকটিম রুবেল ওই ২ ভাইয়ের ঘরে ঢোকার বিষয়ে জানা যায়, দীর্ঘদিন ধরে রুবেল মাদকসেবী ছিল। নেশার টাকা যোগাড় করার জন্য সে বিভিন্ন সময় চুরি করত। ইতোপূর্বে চুরির ঘটনায় তার গ্রামে বিচার-সালিশ হয়েছে। ঘটনার দিন রাতে রুবেল চুরি করার উদ্দেশ্যেই দুই ভাইয়ের ঘরে ঢোকার চেষ্টা করে। ঘরের দরজা খুলে রুবেলের সাথে ধস্তাধস্তি এক পর্যায়ে লোহার রড দিয়ে রুবেলের মাথায় আঘাত করে শামীম।

ব্রেকিংনিউজ/টিটি/জেআই

bnbd-ads
MA-in-English
bnbd-ads