ডেঙ্গু নিয়ে ‘দ্বিমুখী বক্তব্য’ মন্ত্রীদের, সমালোচনার মুখে সরকার

রাহাত হুসাইন
৬ আগস্ট ২০১৯, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: ০৪:১২ আপডেট: ০৬:০২

ডেঙ্গু নিয়ে ‘দ্বিমুখী বক্তব্য’ মন্ত্রীদের, সমালোচনার মুখে সরকার

দেশজুড়ে ডেঙ্গুর ভয়াবহ প্রকোপ। মহামারি আকার ধারণ করেছে মশাবাহিত এ রোগ। প্রতিদিনই হাজার হাজার লোক ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন। ডেঙ্গু কেড়ে নিচ্ছে প্রাণ। কিন্তু এ নিয়ে সরকারের সংশ্লিষ্ট পর্যায় থেকে এখন পর্যন্ত কার্যকর কোনও উদ্যোগ না থাকায় সাধারণ জনগণের মধ্যে হতাশা ও ক্ষোভ সৃষ্টি হচ্ছে। সমালোচনা ও নিন্দার ঝড় উঠছে নানা মহলে। অথচ এই ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকারের শীর্ষ পর্যায় থেকে যে বক্তব্য পাওয়া যাচ্ছে তাতেও রয়েছে গড়মিল। একেক সময় একেক কথা বলছেন সিটি করপোরেশনের মেয়র ও সরকারের মন্ত্রীরা। মন্ত্রীদের কারও কারও কথায় ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে জানানো হলেও অন্যদিক থেকে বলা হচ্ছে, এখনও নিয়ন্ত্রণ হয়নি ডেঙ্গু। ডেঙ্গু নিয়ে ক্ষমতাসীন দলের দায়িত্বশীলদের নানারকম বক্তব্যে জনমনে উদ্বেগ আর উৎকণ্ঠা শুধু বাড়ছেই।

ডেঙ্গুর প্রকোপ রাজধানী ছেড়ে যখন সারা দেশে ছড়িয়ে পড়েছে তখন ব্যক্তিগত সফরে দেশের বাহিরে গেলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। সংবাদমাধ্যমে এ খবর প্রকাশের পর তুমুল সমালোচনা শুরু হয়। এরইমধ্যে দেশে ফিরেন তিনি। গত শনিবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ডেঙ্গু আক্রান্তদের দেখতে এসে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। প্যানিক হওয়ার কিছু নেই।’

এর আগেও গত ২৫ জুলাই স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢাকা মেডিকেল কলেজের (ঢামেক) মিলন অডিটরিয়ামে  ডেঙ্গু পরিস্থিতি শীর্ষক বৈজ্ঞানিক সেমিনারে বক্তৃতায় দাবি করেন- ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। মিডিয়াকে আতঙ্ক ছড়ানোর মতো সংবাদ প্রকাশ না করতে অনুরোধ জানান তিনি। 

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সুরে সুর মিলিয়ে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলামও দাবি করেছিলেন, ‘ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।’ গত ২৫ জুলাই ঢাকায় ‘মশক নিধন ও পরিচ্ছনতা সপ্তাহ’ উদ্বোধনের পর তিনি বলেন- ‘ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে, কারণ সব প্রতিষ্ঠান একযোগে কাজ করছে।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বক্তব্যের তিন দিন পরই ‘ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে রয়েছে’ সরকারের দুই মন্ত্রীর এমন বক্তব্য নাকচ করে দিলেন ক্ষমতাসীন দলের সর্বোচ্চ দ্বিতীয় সাংগঠনিক নেতা ওবায়দুল কাদের। মঙ্গলবার (৬ আগস্ট) বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের বিশেষ জরুরি সভায় তিনি বলেন, ‘ঢাকা সিটিতে প্রতিদিনই ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। মুখে মুখে বললেও বাস্তবে ডেঙ্গু এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি।’

ডেঙ্গু মোকাবিলায় সরকারের মন্ত্রীদের নানামুখি বক্তব্যে হতাশা ব্যক্ত করেছেন ক্ষমতাসীন জোটের শরিকদল বাংলাদেশ জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (বাংলাদেশ জাসদ) সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান। তিনি ব্রেকিংনিউজকে বলেন, ‘ডেঙ্গু মোকাবিলায় কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না। শুধু কথার ফুলঝুরি চলছে।’  

মন্ত্রীদের বিভিন্ন রকমের বক্তব্যে বিষয়ে জানতে চাইলে ১৪ দলের জোট অন্যতম নেতা বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন ব্রেকিংনিউজকে বলেন, ‘স্বাস্থ্যমন্ত্রী বিষয়টি এড়িয়ে গেলেও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের দায়িত্বশীল জায়গা থেকে সত্যি কথা বলেছেন। তবে আমি মনে করি ডেঙ্গু মোকাবিলায় সরকারের সবক্ষেত্রেই সমন্বয়হীন রয়েছে।’  

স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশনস সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম থেকে জানানো হয়েছে, গত রবিবার সকাল ৮টা থেকে সোমবার সকাল ৮টা পর্যন্ত মাত্র ২৪ ঘণ্টায় দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ২ হাজার ৬৫ জন রোগী ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন।

গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত পাওয়া তথ্যে, সারা দেশে বিভিন্ন হাসপাতালে বর্তমানে ৭ হাজার ৬৫৮ জন ডেঙ্গু রোগী আছেন। এর মধ্যে শুধু ঢাকার ৩৮টি সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে এ সংখ্যা ৪ হাজার ৯৬২ জন। 

সরকারি হিসাবে এখন পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ১৮ জনের মৃত্যুর কথা জানানো হলেও বেসরকারি তথ্যানুযায়ী এ সংখ্যা ৯০ ছাড়িয়েছে। 

ব্রেকিংনিউজ/আরএইচ/এমআর

bnbd-ads