ডেঙ্গু নিরসনে ‘ইনটেলেকচুয়াল ক্যাপিটাল’ ব্যবহার করতে হবে: শিক্ষা উপমন্ত্রী

জবি করেসপন্ডেন্ট
৬ আগস্ট ২০১৯, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: ০৮:২৯ আপডেট: ০৮:৩০

ডেঙ্গু নিরসনে ‘ইনটেলেকচুয়াল ক্যাপিটাল’ ব্যবহার করতে হবে: শিক্ষা উপমন্ত্রী

ডেঙ্গু নিরসনে ‘ইনটেলেকচুয়াল ক্যাপিটাল’ ব্যবহার করতে হবে ব‌লে মন্তব্য ক‌রে‌ছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী। তি‌নি বলেন, ‘সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে ডেঙ্গু নিয়ে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা গ্রহণ করা যাবে এবং এই সমস্যা থেকে পরিত্রাণ পাওয়া যাবে।’

মঙ্গলবার (৬ আগস্ট)  জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) ভাষা শহীদ রফিক ভবনের নীচে ‘ডেঙ্গু বিষয়ক সচেতনতা সৃষ্টি ও মশক নিধন কর্মসূচি’ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তি‌নি এসব কথা বলেন।

মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী ও ইনটেলেকচুয়াল ক্যাপিটালকে একত্রিত করে আমরা সামনে যেতে পারি। আমাদের যতো কীটতত্ববিদ , একাডেমিশিয়ান , বিশেষজ্ঞ ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে সঙ্গে নিয়ে যদি একসঙ্গে কাজ করতে পারি, তাহলে এ সংকট মোকাবিলায় আমরা দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা গ্রহণ করতে পারবো। অন্যথায় আমরা আমাদের ইনটেলেকচুয়াল ক্যাপিটালকে যদি ইউটিলাইজ করতে না পারি তাহলে এটা নিরসনে স্বল্পমেয়াদী ব্যবস্থা গ্রহণ করা যাবে, কিন্তু দীর্ঘমেয়াদি নয়। শিক্ষক, শিক্ষার্থীসহ আমরা সকলেই যদি এই ব্যাপারে নিজস্ব গন্ডিতে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারি তাহলে এই সমস্যার সমাধান হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর কীটতত্ববিদদের সাহায্যে আমরা এ নাগরিক সমস্যার ব্যাপারে ভালো পদক্ষেপ নিতে পারবো এবং যেকোনো ধরনের ইনসেক্টিসাইড খেয়াল খুশিমতো ব্যবহার করে এই মশা নিধন করা সম্ভব নয়।’

রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান। এতে বক্তব্য রাখেন কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক সেলিম ভূঁইয়া, জবি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ড. নূর মোহাম্মদ, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল প্রমুখ ।

ব্রেকিংনিউজ/এএইচ/জেআই

bnbd-ads