যাত্রীদের নিরাপত্তায় ঢাকা-পাটুরিয়া মহাসড়কে সিসি ক্যামেরা

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি
৩ আগস্ট ২০১৯, শনিবার
প্রকাশিত: ১১:১৯ আপডেট: ০২:৪৮

যাত্রীদের নিরাপত্তায় ঢাকা-পাটুরিয়া মহাসড়কে সিসি ক্যামেরা

অপরাধমুক্ত রাখতে এবং যাত্রীদের নিরাপদ যাত্রা নিশ্চিত করতে ঢাকা-পাটুরিয়া মহাসড়কের মানিকগঞ্জের পুরো অংশ এবং জেলা শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে।

জানা গেছে, ঢাকা-আরিচা-পাটুরিয়া মহাসড়কে চলাচলকারী যাত্রী এবং জেলা ও জেলা শহরের সাধারণ মানুষের জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত এবং পুরো জেলাকে অপরাধমুক্ত রাখতেই মানিকগঞ্জ জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে এরকম সময়পোযোগী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। 

শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে এবং প্রশাসনিক এলাকা, ঢাকা-পাটুরিয়া সড়কে বসানো হয়েছে পর্যাপ্ত পরিমাণ সিসি ক্যামেরা। এর মধ্যে মানিকগঞ্জ শহরের জন্য গুরুত্বপূর্ণ এলাকার ১৬টি পয়েন্টে মোট ৩৪টি সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। 

সদর হাসপাতাল গেটে ১টি, খালপাড়ে ৪টি, কোর্ট চত্বরে ২টি, সরকারী বালক উচ্চ বিদ্যালয় মোড়ে ২টি, তৃপ্তি প্লাজায় ২টি, প্রেসক্লাবে ২টি, পুরানো এপেক্সে ২টি, শাহজালাল ব্যাংকে ২টি, বাজার ব্রীজে ২টি, গঙ্গাধরপট্টি মন্দির রোডে ২টি, স্টেডিয়াম মোড়ে ২টি, সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মোড়ে ২টি, স্বর্ণকার পট্টি মোড়ে ২টি, বেউথা মোড়ে ৩টি, বেউথা ব্রিজের গোলচত্বরে ১টি, জরিনা কলেজ মোড়ে ৩টি।

এছাড়া মানিকগঞ্জ পুলিশ অফিসে ৫টি, সদর থানা কম্পাউন্ডে ৮টি ,হরিরামপুর থানা কম্পাউন্ডে ৭টি, ঘিওর থানা কম্পাউন্ডে ৪ টি, দৌলতপুর থানা কম্পাউন্ডে ৬টি, শিবালয় থানা কম্পাউন্ডে ৮ টি, সাটুরিয়া থানা কম্পাউন্ডে ৮ টি ,সিংগাইর থানা কম্পাউন্ডে ৬ টি সিসি ক্যামেরা বসানো হয়েছে। 

এদিকে ঢাকা-পাটুরিয়া মহাসড়কের মানিকগঞ্জের অংশে সাটুরিয়া থানাধীন বারবারিয়া হতে শিবালয় থানাধীন পাটুরিয়া ঘাট পর্যন্ত মহাসড়কে সর্বমোট ২০টি পয়েন্টে ৫৬টি সিসি ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে।

বারবারিয়ায় ২টি, রাইজিংয়ে ২টি, নয়াডিঙ্গিতে ৪টি, তারসিমায় ২টি, গোলড়ায় ৩টি, জাগীর পুলিশ চেকপোস্টে ১টি, জেলা কারাগারের পাশে ২টি, বাসট্যান্ড এলাকায় ৫টি, মানরায় ২টি, মুন্নুগেটে ২টি, বানিয়াজুরিতে ৩টি, পুখুরিয়ায় ২টি, স্টোন ব্রীজ এলাকায় ২টি, মহাদেবপুরে ২টি, বরংগাইলে ৩টি, টেপড়াতে ২টি, উথলীতে ২টি, আরিচা মোড়ে ২টি, আরসিএল মোড়ে ২টি, পাটুরিয়া ঘাট এলাকাতে ১০টি। সর্বমোট ১৪২ টি সিসি ক্যামেরা পুরো জেলা ও ঢাকা-পাটুরিয়া সড়কের গুরুত্বপর্ন স্থানে বসানো হয়েছে।

মানিকগঞ্জ পুলিশ সুপার রিফাত রহমান শামীম সাংবাদিকদের বলেন, সিসি ক্যামেরার সাহায্যে দুর্নীতি, অপরাধ এবং অপরাধীদের দ্রুত সময়ের মধ্যে শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনা যাবে। এছাড়া সাধারণ মানুষের কাছে সেবাটা স্বচ্ছভাবে ছড়িয়ে দিতে প্রতিটা থানা কম্পাউন্ডে যুক্ত করা হয়েছে সিসি ক্যামেরা। যা অপটিক্যাল ফাইবার দ্বারা জেলার পুলিশের কন্ট্রোল রুম থেকে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে।

ব্রেকিংনিউজ/এমজি