ছেলেধরা সন্দেহে ২ জনকে গণপিটুনি, রক্ষা করতে গিয়ে পুলিশ আহত

নুরনবী সরকার, লালমনিরহাট প্রতিনিধি
২১ জুলাই ২০১৯, রবিবার
প্রকাশিত: ০৯:৩৩

ছেলেধরা সন্দেহে ২ জনকে গণপিটুনি, রক্ষা করতে গিয়ে পুলিশ আহত

লালমনিরহাটে ছেলেধরা সন্দেহে ২ মানসিক প্রতিবন্ধীকে স্থানীয়দের গণপিটুনি থেকে রক্ষা করতে গিয়ে আহত হয়েছেন জিল্লুর রহমান নামে এক পুলিশ কর্মকর্তা। 

শনিবার (২০ জুলাই) দিবাগত রাতে সদর উপজেলার কলাবাগান কলোনি এলাকায় ও রবিবার (২১ জুলাই) দুপুরে আদিতমারী উপরজেলার সাপ্টিবাড়ী চৌরাস্তা মোড়ে এ ঘটনা দুইটি ঘটে।

লালমনিরহাট সদর থানার ওসি (তদন্ত) এরশাদুল আলম বলেন, ‘মানসিক ভারসাম্যহীন (পাগল) এক বৃদ্ধা নারী সদর উপজেলার কলাবাগান কলোনি এলাকায় পরিত্যক্ত রেললাইনে বসেছিলেন। এ সময় স্থানীয়রা ছেলেধরা সন্দেহে তাকে গণপিটুনি দিতে শুরু করে। পরে খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশ ওই নারীকে উদ্ধার করতে গেলে স্থানীয়দের ছুড়ে মারা পাথরের আঘাতে আহত হন উপ-পরিদর্শক (এসআই) জিল্লুর রহমান। ওই নারীকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত নারীর পরিচয় পাওয়া না গেলেও অনেকেই তাকে দীর্ঘদিন ধরে শহরের বিভিন্ন গলিতে দেখেছেন বলে জানতে পেরেছি।’

এ দিকে রবিবার দুপুরে আদিতমারী উপজেলার সাপ্টিবাড়ী চৌরাস্তা মোড়ে ছেলেধরা সন্দেহে ৪০ বছর বয়সী মানসিক প্রতিবন্ধী এক যুবককে গণপিটুনি থেকে রক্ষা করে পুলিশ। বর্তমানে ওই প্রতিবন্ধী যুবক পুলিশের হেফাজতে আছে। 

এ বিষয়ে লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক বলেন, ‘অপরিচিত কাউকে কোনো প্রকার সন্দেহ হলে আইন হাতে তুলে না নিয়ে নিকটস্থ পুলিশকে খবর দিন। সন্দেহ হলেই কেউ অপরাধী নয়। মাথা কাটা বা ছেলেধরা এটা একটি গুজব মাত্র। গুজবে কান না দিতে সবার প্রতি আহ্বান রইল।’

ব্রেকিংনিউজ/জেআই