মাদারীপুরে অন্তঃসত্ত্বা নারীকে কুপিয়ে জখম

জেলা প্রতিনিধি
৯ নভেম্বর ২০১৯, শনিবার
প্রকাশিত: ০২:৫৯ আপডেট: ০৪:৫৪

মাদারীপুরে অন্তঃসত্ত্বা নারীকে কুপিয়ে জখম

জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে মাদারীপুর সদরে অন্তঃসত্ত্বা এক নারীসহ দুজনকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। আহতদের মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শুক্রবার (৮ নভেম্বর) রাতে সদরের কুনিয়া ইউনিয়নের ত্রিভাগদী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

হামলায় আহতদের পরিবার জানায়, শুক্রবার রাতে ত্রিভাগদী গ্রামের মাসুদ কাজী (৫২) একই গ্রামে তার বোনের বাড়ি গিয়ে আকরাম বেপারির (৪০) জমি পরিমাপের বিষয়ে আলাপ করছিলেন। আলাপের একপর্যায়ে কথা কাটাকাটির মধ্যেই উভয় পক্ষ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এতে মাসুদ কাজী ও তার ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা ভাগনি মিতু আক্তার (২৪) রামদার আঘাতে আহত হন। পরে স্বজনরা তাদেরকে উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। 

আহত মাসুদ কাজী বলেন, ‘ঝগড়াঝাটির একপর্যায়ে আকরাম ও তার ভাইরা রামদা দিয়ে আমাদের উপরে হামলা চালায়। তারা আমার হাত-পায়ে কোপ দেয়। এ সময় ঘটনাস্থলে থাকা আমার ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা ভাগনির পেটেও তারা রামদার বাট দিয়ে আঘাত করে।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে আকরাম বেপারি অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘অন্তঃসত্ত্বা কোনো নারীকে আমি আঘাত করিনি। বৃষ্টির কারণে সে পড়ে গিয়ে আঘাত পেতে পারে।’

আহত মিতু আক্তারের বাবা লতিফ হাওলাদার বলেন, ‘আমার অন্তঃসত্ত্বা মেয়ের ওরা পেটে রামদার বাট দিয়ে আঘাত করেছে। আমি ওদের বিচার চাই।’

মাদারীপুর সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. রিয়াদ মাহমুদ জানান, রাতে দুজনকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছে। তারা বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

সদর থানার এসআই খোসরুজ্জামান জানান, অভিযোগ পেয়ে সদর হাসপাতালে গিয়েছি। ঘটনার তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ব্রেকিংনিউজ/এম

bnbd-ads