bnbd-ads
bnbd-ads

পবায় নির্বাচনী সভায় হামলা, আহত ১০

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, রাজশাহী
১১ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: ০৩:৫১

পবায় নির্বাচনী সভায় হামলা, আহত ১০

রাজশাহী পবা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতিকের প্রার্থী মুনসুর রহমানের নির্বাচনী সভায় হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ১০ জন নেতাকর্মী আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। এ হামলার সঙ্গে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরাই জড়িত বলে অভিযোগ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মুনসুর রহমানের।

হামলায় গুরুতর আহত ৩ জনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

উল্লেখ্য, আগামী ১৮ জুন রাজশাহীর পবা উপজেলায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। 
 
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সোমবার (১০ জুন) সন্ধ্যায় নির্বাচন উপলক্ষে উপজেলার পারিলা ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের উদ্যোগে নৌকার প্রার্থী মুনসুর রহমান ও আওয়ামী লীগের মনোনীত ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাকের পক্ষে নির্বাচনী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। রাত ৮ টার দিকে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ সভায় হামলা করে ভাঙচুর ও ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সভাপতি, সহ-সভাপতিসহ ১০ জনকে আহত করেছে। 

এ সময় গুরুতর আহত হয় ইউনিয়ন শ্রমিক লীগ সভাপতি শফিকুল ইসলাম রুবেল, সহ-সভাপতি সুকতার আলী, প্রচার সম্পাদক আল-আমিন, পারিলা ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ড শ্রমিক লীগ সভাপতি শহিদুল ইসলাম ও আকতার আলী। 

পারিলা মহিলা লীগ নেত্রী ফাহিমা বেগম বলেন, ‘পারিলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সোহরাবসহ ২৫-৩০ জন সন্ত্রাসী সভায় হামলা চালায়। এতে আমাকেও লাঞ্চিত করা হয়। পুলিশ থাকলেও তাদের তেমন কোনো ভূমিকা দেখা যায়নি। তারা শুধু আমাদের কর্মীদেরকেই মারপিট করেনি। তারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি ছিঁড়ে ফেলেছে। পাশাপাশি তারা একটি ৩০ ইঞ্চি এলইডি টিভি, বেশ কয়েকটি চেয়ার ভাঙচুর করে’।

আহতরা বলেন, ‘পারিলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সোহরাব আলীর নেতৃত্বে সোহরাবের ছেলে সৌমিক, মৃত জোনাব আলীর ছেলে আসাদুল, শামসুলের ছেলে মুঞ্জুর, কালামের ছেলে হাবিব, ওয়াজেদের ছেলে সম্রাট, তোসলেমের ছেলে আসলাম, শফিকুলের ছেলে পুলকসহ তারা সভার মধ্যেই আমাদের ওপর হামলা চালায়। 

এ সময় আতংকে বিরাজ প্রাণ ভয়ে দিক-বিদিক ছুটতে থাকে কর্মীরা। স্থানীয়রা আমাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে। 

তারা জানায়, থানায় মৌখিকভাবে অভিযোগ দেয়া হয়েছে তবে চিকিৎসা শেষে থানায় মামলা করা হবে। 

পবা থানা ওসি বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। থানায় অভিযোগ দিলে তদন্ত সাপেক্ষে পদক্ষেপ নেয়া হবে।  

ব্রেকিংনিউজ/এসএসআর

bnbd-ads
MA-in-English
bnbd-ads