ব্রহ্মপুত্র নদে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, দশ লাখ টাকা ক্ষতি দাবি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: ১২:৩৩

ব্রহ্মপুত্র নদে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, দশ লাখ টাকা ক্ষতি দাবি

ময়মনসিংহে ব্রহ্মপুত্র নদে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ড্রেজার উচ্ছেদ ও ড্রেজারে আগুন দেয়া হয়েছে। নগরীর পুলিশ লাইন্স, কাচারিঘাট, কালিবাড়ি ঘাট এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ময়মনসিংহ সদর ভূমি কমিশনার মো. মহিনুল হাসান।

বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) ব্রহ্মপুত্র নদে তিনটি ড্রেজার ভেঙে আগুন দেয় ভ্রাম্যমাণ আদালত। তবে নগরীর পুলিশ লাইন্স বালু ঘাটে ড্রেজার ভাঙাকে আইন বিরোধী বলে উল্লেখ্য করে প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষতি সাধনের অভিযোগ তুলেছেন এক ড্রেজার মালিক।

এদিকে বালু মহাল ইজারাদার আব্দুল হক বলেন, সরকারি নিয়ম অনুযায়ী ইজারাকৃত স্থানে ড্রেজার স্থাপন করে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। আমার মনোনীত ঠিকারাদার রিদুয়ান হাসান ময়না এ অভিযানে ক্ষতির শিকার হয়েছেন। এ বিষয়টি হয়তো বিজ্ঞ ম্যাজিস্ট্রেট অবহিত নন তাই অভিযানটি পরিচালনা করেছেন বলে তিনি জানিয়েছেন।

অন্যদিকে ইজারাদারের মনোনীত ঠিকারাদার রিদুয়ান হাসান ময়না অভিযোগ করে বলেন, একটি ষড়যন্ত্রকারী চক্রের ইন্ধনে এটি ঘটেছে বলে আমি মনে করি। বৈধ ইজারাকৃত স্থানে আমার ড্রেজার স্থাপন করেছি। বৈধতা থাকা সত্ত্বেও আমাদের ড্রেজার ভেঙে আগুন দেয়া হয়েছে। এতে প্রায় ১০ লাখ টাকার ক্ষতি সাধান করা হয়েছে আমার। তিনি দায়িত্বশীল প্রশাসনের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, আমাদের ইজারার বৈধতা সঠিক থাকলে ক্ষতিপুরণের দাবি জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সদর উপজেলা ভূমি কমিশনার মো. মহিনুল হাসান বলেন, ড্রেজার গুলো বৈধ ইজারাকৃত নদের আওতায় থাকলেও বৈধ ইজারাদারের নয়। এখানে ইজারাদার অন্য কাউকে ড্রেজার বসানোর অনুমতি দেয়ার নিয়ম নাই। ড্রেজার গুলো অবৈধভাবে বসিয়েছে বিধায় নষ্ট করা হয়েছে। এক্ষেত্রে বৈধ ইজারাদার আব্দুল হাই এগুলো সরিয়ে নেয়ার কথা বলেছেন।

ব্রেকিংনিউজ/এমজি

bnbd-ads