সংবাদ শিরোনামঃ

নিখোঁজের ৫ দিন পর যুবকের মরদেহ উদ্ধার, আটক ৪

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, রংপুর

১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, সোমবার
প্রকাশিত: ০৬:০৫ আপডেট: ০৬:০৮

নিখোঁজের ৫ দিন পর যুবকের মরদেহ উদ্ধার, আটক ৪
ফাইল ছবি

রংপুরের পীরগাছা উপজেলার কান্দি ইউনিয়নে নিখোঁজের পাঁচ দিন পর এক যুবকের অর্ধ-গলিত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। 

নিহতের নাম ফিরোজ মিয়া ফ্রেস (২২)। তিনি ওই ইউনিয়নের কাবিলা পাড়াগ্রামের আমির উদ্দিনের ছেলে। এ ঘটনায় চার যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার (১১ ফেব্রুয়ারি) সকালে উপজেলার কান্দি ইউনিয়নে নির্মাণাধীন গুচ্ছগ্রাম থেকে মাটি চাপা দেয়া অবস্থায় মরদেহটি উদ্ধার হয়।

স্থানীয়রা জানান, গত বৃহস্পতিবার (৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যার পর থেকে ফিরোজ মিয়ার কোনো খোঁজ পাচ্ছিল না তার পরিবার। অনেক খোঁজাখুঁজির পর কোথাও না পেয়ে শনিবার পীরগাছা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন তার বাবা আমির উদ্দিন। এ ঘটনার পাঁচ দিনের মাথায় সোমবার সকালে ফিরোজের বাড়ি থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার দূরে নির্মাণাধীন একটি গুচ্ছগ্রামে মাটিচাপা অবস্থায় একটি মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয় এলাকাবাসী। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করলে ফিরোজের পরিবার সেটি শনাক্ত করে।

হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে আটক চার যুবক হলেন- উপজেলার কাবিলাপাড়া গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে টিপু (২৬), মৃত আওয়াল মিয়ার ছেলে শাহিন মিয়া (২৫), মতিল চৌকিদারের ছেলে সুলতান হোসেন ও পাশ্ববর্তী দোয়ানী গ্রামের নুর মোহাম্মদের ছেলে জাহিদুল ইসলাম (২৪)।  ঘটনার দিন কান্দি বাজারের একটি চায়ের দোকানে ফিরোজের সাথে আটক হওয়া ওই যুবকরা ছিলেন বলে জানায় এলাকাবাসী।

নিহতের বাবা আমির উদ্দিন জানান, আমার ছেলের সঙ্গে কারও শত্রুতা নেই। তবে নিখোঁজের দিন তার সাথে লক্ষাধিক টাকা ছিল। ওই টাকা হাতিয়ে নিতেই তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।

পীরগাছা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতের মরদেহ সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করছে।

ব্রেকিংনিউজ/এসআর/জেআই