ক্রাফট কমপ্লেক্সের জন্য জায়গা বরাদ্দের দাবি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: ১১:৩৩ আপডেট: ১১:৩৬

ক্রাফট কমপ্লেক্সের জন্য জায়গা বরাদ্দের দাবি

দেশে উৎপাদিত হস্ত ও কারু শিল্পপণ্যের প্রদর্শন ও বিপণনের জন্য একটি ক্রাফট কমপ্লেক্স গড়ে তুলতে জায়গা বরাদ্দের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ হস্তশিল্প প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি (বাংলাক্রাফট)। 

মঙ্গলবার (১২ ফেব্রুয়ারি) শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূনের সাথে আয়োজিত বৈঠকে সমিতির নেতারা এ দাবি জানান। 
ঢাকায় শিল্প মন্ত্রণালয়ে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। 

বৈঠকে শিল্প মন্ত্রণালয়ের রুটিন দায়িত্বপ্রাপ্ত সচিব বেগম পরাগ, বাংলাক্রাফটের সভাপতি আশরাফুর রহমান, নির্বাহী সদস্য ফৌজিয়া আমিন নীনা, রাজিয়া সুলতানা ও মোহাম্মদ আবু কাউসার, কোষাধ্যক্ষ এ বি এম হেলাল ও পরামর্শক নবি নেওয়াজ উপস্থিত ছিলেন। 

বৈঠকে দেশের হস্ত ও কারু শিল্পের গুণগত মানোন্নয়ন, উৎপাদিত পণ্য রপ্তানি এবং প্রদর্শনীর আয়োজনের বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। এ সময় সমিতির নেতারা বলেন, তৈরিপোশাক শিল্পের পাশাপাশি কারু ও হস্ত শিল্পের বিকাশ বাংলাদেশের রপ্তানি আয় বৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে পারে। এ শিল্পখাতের প্রসার ঘটিয়ে তৃণমূল পর্যায়ে নারীর অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন, কর্মসংস্থান সৃষ্টি  ও দারিদ্র্য বিমোচন সম্ভব। তারা শিল্প মন্ত্রণালয় প্রণীত ‘হস্ত ও কারু শিল্প নীতিমালা ২০১৫’ এর আলোকে এ শিল্পখাতের বিকাশে সরকারের পৃষ্ঠাপোষকতা কামনা করেন। 

বাংলাক্রাফটর নেতারা বৈঠকে শিল্প মন্ত্রণালয়ের সাথে যৌথ উদ্যোগে ‘জাতীয় হস্ত ও কারু শিল্প মেলা’ আয়োজনের প্রস্তাব করেন। 

তারা বলেন, এ মেলায় হস্ত ও কারু শিল্পখাতে উৎপাদিত রপ্তানিমুখী পণ্য প্রদর্শন করা হবে। পাশাপাশি বাংলাদেশি হস্ত ও কারু শিল্পপণ্য সম্পর্কে ধারণা দিতে বিদেশি ক্রেতাদেরকে মেলা পরিদর্শনের সুযোগ করে দেয়া হবে। এর মাধ্যমে বিশ্ববাজারে বাংলাদেশি হস্ত ও কারু শিল্পপণ্য সম্পর্কে ধারণা জোরদার হবে। এ লক্ষ্যে তারা একটি উপযুক্ত ভেন্যুর ব্যবস্থা করতে শিল্প মন্ত্রণালয়ের সহায়তা কামনা করেন। 

শিল্পমন্ত্রী বলেন, দেশীয় হস্ত ও কারু শিল্পের বিকাশে সরকারের সব ধরনের সমর্থন থাকবে। এসব পণ্য বিশ্ববাজারে রপ্তানির মাধ্যমে বাংলাদেশের ব্র্যান্ডিং সম্ভব। এছাড়া, রপ্তানি পণ্য বহুমুখীকরণের ক্ষেত্রেও এ শিল্পের বিশাল সুযোগ রয়েছে। তিনি ক্রাফট কমপ্লেক্স গড়ে তুলতে প্রয়োজনীয় জায়গা চেয়ে যথাযথ প্রক্রিয়ায় আবেদনের জন্য বাংলাক্রাফ্ট নেতাদের পরামর্শ দেন। বাংলাদেশে কর্মরত বিদেশি মিশনসহ আন্তর্জাতিক ক্রেতাদের অংশগ্রহণের সুবিধার্থে হস্ত ও কারু শিল্প প্রদর্শনী আয়োজনে সহায়তা করা হবে বলে তিনি নেতাদের আশ্বস্ত করেন। 

ব্রেকিংনিউজ/এমজি

bnbd-ads