প্রশ্নপত্রে পর্ন তারকা: সেই শিক্ষক স্থায়ী বহিষ্কার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট
২৩ এপ্রিল ২০১৯, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: ০৪:৪১ আপডেট: ০৪:৪২

প্রশ্নপত্রে পর্ন তারকা: সেই শিক্ষক স্থায়ী বহিষ্কার

বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির প্রশ্নপত্রে (এমসিকিউ) দুটি প্রশ্নের সম্ভাব্য উত্তরে দুই পর্ন তারকার নাম যুক্ত করার জন্য প্রশ্নপত্র প্রণয়নকারী সেই শিক্ষক শংকর চক্রবর্তীকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করেছে রাজধানীর রামকৃষ্ণ মিশন উচ্চ বিদ্যালয়। 

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় স্কুলটির পরিচালনা পর্ষদ ও শিক্ষকদের সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে রামকৃষ্ণ মিশন উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জয় প্রকাশ সরকার ব্রেকিংনিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

প্রধান শিক্ষক জয় প্রকাশ সরকার বলেন, অভিযুক্ত ওই শিক্ষকের কারণে আমাদের প্রতিষ্ঠানের অনেক ক্ষতি হয়ে গেল। কিন্তু কী আর করার আছে? তাকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। আবার নতুন কেউ হয়তো নিয়োগ পাবেন শিক্ষক হিসেবে।’

তিনি বলেন, ‘তবে আমরা চেষ্টা করব এমন কাউকে স্কুলের সঙ্গে যুক্ত করতে, যিনি শিক্ষকতা পেশাকে সম্মান করেন এবং যত্নসহকারে পড়ান।’

উল্লেখ্য, বুধবার (১৭ এপ্রিল) ঢাকার রামকৃষ্ণ মিশনের নবম শ্রেণির বাংলা প্রথমপত্রের বহু নির্বাচনি (এমসিকিউ) প্রশ্নে জানতে চাওয়া হয়, ‘বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের পিতার নাম কী?’ এই প্রশ্নের সম্ভাব্য যে চারটি উত্তর দেয়া হয়েছে, তার মধ্যে রয়েছে পর্ন তারকা মিয়া খালিফার নাম! তবে তার নাম লেখা হয়েছে মিয়া কালিফা।

শুধু তাই নয়, বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিখ্যাত কিশোর উপন্যাস আম-আঁটির-ভেঁপুর (প্রশ্নে আঁটি বানানে চন্দ্রবিন্দু নেই) রচয়িতার সম্ভাব্য নাম হিসেবে রাখা রয়েছে সাবেক পর্ন তারকা অভিনেত্রী সানি লিয়নের নাম!

শুধু তাই নয়, এই প্রশ্নপত্রে রয়েছে এমন আরও অদ্ভুত বিষয়। চতুর্থ প্রশ্নটিতে প্রমথ চৌধুরীর পৈতৃক নিবাস কোথায়— এমন প্রশ্নের সম্ভাব্য উত্তরে রাখা হয়েছে রাজধানীর বলধা গার্ডেনের কথা। তবে নামটি লেখা হয়েছে বলদা গার্ডেন। 

এনিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়। এই ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন শিক্ষামন্ত্রী দিপুমনি।

গত ২০ এপ্রিল কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অভিযুক্ত শিক্ষক শংকর চক্রবর্তীকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়। লজ্জাজনক প্রশ্নপত্র তৈরির কারণ জানতে চেয়ে তাকে শোকজও করা হয়েছে। আল্টিমেটাম দিয়ে তাকে শোকজের জবাব দিতে বলা হয়েছিল।

ব্রেকিংনিউজ/টিটি/ এসএ 

bnbd-ads
bnbd-ads