আমাজন বাঁচাতে ৫০ মিলিয়ন ডলার অনুদান লিওনার্দোর

বিনোদন ডেস্ক
২৭ আগস্ট ২০১৯, মঙ্গলবার
প্রকাশিত: ০৯:০২

আমাজন বাঁচাতে ৫০ মিলিয়ন ডলার অনুদান লিওনার্দোর

জ্বলছে আমাজন, জ্বলছে পৃথিবীর ফুসফুস। বিশ্বের প্রায় ২০ শতাংশ অক্সিজেনের উৎস ধ্বংস হয়েছে ব্রাজিলের প্রশাসনের কারণে। যার জন্য সোশ্যাল মিডিয়াতে ঝড় উঠেছে। তবে এদিন বিমানে করে চাপে পড়ে প্রশাসনের তরফ থেকে জল দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু কেন এই ঘটনা ঘটল তাঁর হদিস পাওয়া যাচ্ছে না। আর এই ঘটনাতে আমাজনের জঙ্গল সংরক্ষণে এগিয়ে এসেছেন হলিউডের অস্কারজয়ী অভিনেতা লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও। 

বিগত বেশ কয়েকবছর ধরে গোটা বিশ্বে পরিবেশ সচেতনতার জন্য বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছিলেন লিওনার্দো। সেই সংক্রান্ত কাজে দেখা যায় এই অভিনেতাকে। এই কারণেই রয়েছে তার চ্যারিটি ‘আর্থ এলিয়েন্স’। এবার সেই চ্যারিটি ফান্ড থেকেই ৫০ মিলিয়ন ডলার দান করলেন লিওনার্দো। মূলত আমাজনের বৃষ্টিঅরণ্য বাঁচাতে এই উদ্যোগ নিয়েছেন লিওনার্দো।

তবে অভিনেতা নিজে নয় আমাজন ও ব্রাজিলের সরকারি স্বীকৃতি প্রাপ্ত এনজিও গুলির মাধ্যমে এই আর্থিক অনুদান দিচ্ছেন বলেই জানা গিয়েছে। বিগত কয়েকবছর ধরেই বিশ্বের পরিবেশ সচেতনতা নিয়ে নানা কাজ করে চলেছেন লিওনার্দো। তার এই সংস্থা ১৯৯৮ সাল থেকে কাজ করছে বিশ্বের নানা জায়গাতে। 

মূলত সাধারণ মানুষদের মধ্যে পরিবেশ সচেতনতা বাড়ানোর কাজ করেন লিওনার্দো তার এই নন-প্রফিট সংস্থার মাধ্যমে। কিছুদিন আগেই ভারতের জলকষ্টের কথা জানিয়ে টুইটবার্তা দেন লিওনার্দো। মূলত গোটা বিশ্বে লিওনার্দোর সংস্থা এখন ৪০ টি দেশে পরিবেশ সচেতনতা নিয়ে নানা কাজ করে চলেছেন। 

তার এই কাজের জন্যই বিভিন্ন জায়গা থেকে বিশেষ খেতাব পেয়েছেন লিওনার্দো। আমাজনের কথা বলতে গেলে,গত ১৫ অগাষ্ট থেকে জ্বলছে পৃথিবীর ফুসফুস অর্থাৎ আমাজন।

ইতিমধ্যেই পুড়ে গেছে সেখানকার সাত হাজার ৭৭০ বর্গ কিলোমিটার এলাকা। আমাজনের এই দাবানল প্রায় তিন সপ্তাহ ধরে চললেও শেষ কয়েকদিন ধরে বাকি পৃথিবীর মানুষ এই সম্পর্কে অবগত হয়েছেন। এমন গুরুতর বিষয় নিয়ে সরকারের কোনও হেলদোল না থাকায় গোটা বিশ্বের সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে ব্রাজিলের সরকারকে।

বিনোদন ডেস্ক