বুয়েট ভিসির কড়া সমালোচনায় সাবেক ছাত্র আবুল হায়াত

বিনোদন ডেস্ক
১০ অক্টোবর ২০১৯, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: ১২:৪৮ আপডেট: ০১:১৫

বুয়েট ভিসির কড়া সমালোচনায় সাবেক ছাত্র আবুল হায়াত

বুধবার দুপুরে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাফেটেরিয়ার হল রুমের সামনে বুয়েট অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন মানব বন্ধনের আয়োজন করে। বুয়েটের তড়িৎ কৌশল বিভাগের ছাত্র ছিলেন আবুল হায়াত। তিনি থাকতেন শেরে বাংলা হলে। যে হলে থাকতেন আবরার ফাহাদ। তার মৃত্যুতে শোকাহত আবুল হায়াতের মতো সাবেক শিক্ষার্থীরাও। 

আবুল হায়াত বলেন, ‘আমরা যখন বুয়েটে পড়েছি তখন এখানকার পরিবেশ এমন ছিলো না। আমরা যখন আন্দোলন করতাম তখন ভিসি এসে আমাদের সামনে বসে থাকতেন। আমাদের দিকে তাকিয়ে হাসতেন। পিতাসুলভ ভিসি বক্তব্য শুনতেন।’

বর্তমানের ভিসির সমালোচনা করে তিনি তার ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং তার ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। আবুল হায়াত বলেন, ‘আর আজকের ভিসি। আমার সন্তান মারা যাওয়ার খবর শুনে আমি যাবো না সেখানে। ভিসির সন্তান নয় ছাত্ররা। এর চেয়ে অবাক করার ঘটনাতো আর কিছু হতে পারে না।’

‘এমনকি আমরা ভিসিকে আমাদের অনুষ্ঠানের জন্য একটি চিঠি দিয়ে দেড় মাস অপেক্ষা করেছি। এবং তিনি একটি বিশেষ অতিথি হয়ে আসবেন বলে কথা দিয়েও আসেননি। এখন একটা ভিসিকে আমরা কী বলতে পারি? তিনি এই প্রতিষ্ঠানের প্রধান।’

প্রবীন এই শিল্পী আরও উল্লেখ করেন যে, ‘আজকে ছাত্রদের যে দাবি আমি তার সঙ্গে একমত আছি। আপনারাও আমার সঙ্গে একমত হবেন আশা করি। তবে ছাত্র রাজনীতি খারাপ আমি তা বলবো না। ছাত্র রাজনীতি করেই আমরা দেশ স্বাধীন করেছি। কিন্তু যারা পেছন থেকে ছাত্র রাজনীতিকে অপব্যাবহার করে তাদের বিরুদ্ধে একশন নিতে হবে। প্রশাসনকে আগে ধুয়ে-মুছে সাফ করতে হবে। হারপিক বা এর চেয়েও কড়া কিছু থাকলে তাদেরকে পরিষ্কার করতে হবে।’

‘প্রয়োজন হলে ১০ বছর বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি বন্ধ রাখেন। এর মধ্যে যদি রাজনীতি করতে চাওয়া ছাত্ররা তাদের মানসিকতার পরিবর্তন করতে পারে তারপর তাদের জন্য রাজনীতি করার সুযোগ দেন।’

উল্লেখ্য বরেণ্য শিল্পী আবুল হায়াত চট্টগ্রাম কলেজ থেকে তৎকালীণ আইএসসি পাস করে ১৯৬২ সালে বুয়েটে ভর্তি হন। বুয়েটে পড়ার সময়ই শেরেবাংলা হলে থাকতেন। এরপর বুয়েটের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্ট থেকে ১৯৬৭ সালে পাস করে ১৯৬৮ সালেই ঢাকা ওয়াসার প্রকৌশলী পদে যোগ দেন। পরবর্তী কালে তিনি অভিনেতা হিসেবে বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। এখনও তিনি অভিনয় করে যাচ্ছেন।

ব্রেকিংনিউজ/অমৃ

bnbd-ads