bnbd-ads
bnbd-ads

‘বলিউড ছাড়া আমাদের ইন্ডাস্ট্রি টিকবে না’

বিনোদন ডেস্ক
১৪ মার্চ ২০১৯, বৃহস্পতিবার
প্রকাশিত: ১২:০০

‘বলিউড ছাড়া আমাদের ইন্ডাস্ট্রি টিকবে না’

পুলওয়ামা হামলার পর পাকিস্তানের চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতি বলেছে, তারা বলিউড ছবি মুক্তি দেয়া নিষিদ্ধ করছে। মার্চ মাসে পাকিস্তানের সর্বোচ্চ আদালত আরেক কাঠি এগিয়ে এক রুলিং দিলেন যে পাকিস্তানের কোন টিভি চ্যানেলে কোন ভারতীয় 'কনটেন্ট' সম্প্রচার করা যাবে না। এর আওতায় পড়েছে ভারতীয় ফিল্ম, বিজ্ঞাপন এবং টিভি সিরিয়াল।

বলা বাহুল্য, এই পদক্ষেপ অনেকের সমর্থনও পেয়েছে - যারা মনে করেন, যে দেশ পাকিস্তানের ওপর যুদ্ধ চাপিয়ে দিচ্ছে, কী করে তাদের সিনেমা-নাটক পাকিস্তানে মুক্তি পেতে পারে?

কিন্তু এর একটা বিপরীত পক্ষও আছে। বলিউডের সিনেমা প্রদর্শন নিষিদ্ধের সাথে বন্ধ হতে চলেছে পাক সিনেমা হলগুলো। বেকার বসে আছেন বলিউডে কাজ করেন এমন পাকিস্তানি শিল্পীরাও।

পাকিস্তানি বিনোদন সাংবাদিক হাসান জাইদি বলেন, ‘পাকিস্তানি সিনেমা ব্যবসার ৭০ ভাগ আয় আসে ভারতীয় সিনেমার মাধ্যমে। বলিউড ছাড়া আমাদের ইন্ডাস্ট্রি টিকবে না। এই নিষেধাজ্ঞা উঠিয়ে নিতে বাধ্য হবে সরকার।’

এর আগেও উত্তেজনার প্রেক্ষিতে সিনেমার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিলো পাকিস্তান কিন্তু দেখা গেছে এতে বেশি ক্ষতির শিকার হয় বিনোদনের জন্য বলিউড নির্ভর পাকিস্তানই।

পাকিস্তান জুড়ে বর্তমানে ১২০টি সিনেমা হল রয়েছে। যেগুলোতে একটি ভাল সিনেমা দুই সপ্তাহ ধরে চলে। কিন্তু পাকিস্তানের খুড়িয়ে চলা সিনেমা ইন্ডাস্ট্রি থেকে বছরে মুক্তি পায় মাত্র ১০/১৫ টি ছবি। এগুলোর বাজেট-মান কোনটাই ভাল নয়। অথচ ব্যবসা টিকিয়ে রাখতে দরকার কমপক্ষে ২৬টি ভাল চলচ্চিত্র।

পাকিস্তানের চলচ্চিত্র প্রতিবেদক রাফাহ মাহমুদ বলেন, পাকিস্তানে সিনেমা হল টিকিয়ে রাখতে ভারতীয় সিনেমার বিকল্প নেই।

অন্যদিকে পাকিস্তান বলিউডের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়ার পর পাক শিল্পীদের ওপরও নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ভারত। এতে ক্ষতির শিকার হচ্ছেন পাকিস্তানি শিল্পীরা। যাদের মধ্যে আছেন ভারতীয় জনপ্রিয় নায়ক ফাওয়াদ খানসহ অনেকে।

পাকিস্তানের সিনেমাপ্রেমি আলি শিওয়ারি বলেন, ‘আমি বড় হয়েছি শাহরুখ খান, সালমান খান, আমির খানের সিনেমা দেখে। পাকিস্তানে তাদের মতো কেউ তৈরি হতে অনেক সময় লাগবে।’

ব্রেকিংনিউজ/অমৃ