bnbd-ads
bnbd-ads

চিকুনগুনিয়া ও ডেঙ্গু জ্বরের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে প্রয়োজন সচেতনতা

স্টাফ ক‌রেসপ‌ন্ডেন্ট
১৫ মে ২০১৯, বুধবার
প্রকাশিত: ০৩:৩৬

চিকুনগুনিয়া ও ডেঙ্গু জ্বরের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে প্রয়োজন সচেতনতা

বর্ষা মৌসুম এডিস মশার বিস্তার ও প্রজননের সবচেয়ে অনুকূল সময়। ফলে সতর্ক হওয়ার এখনই সময় উল্লেখ করে চিকুনগুনিয়া ও ডেঙ্গু প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে সাধারণ মানুষদের সচেতনতার পাশাপাশি সতর্ক থাকতে হবে বলে মত দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

বুধবার (১৫ মে) ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনিসিসি) অঞ্চল-১ এর উত্তরা-৬ নম্বর সেক্টরের উত্তরা কমিউনিটি কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া বিষয়ক অবহিতকরণ সভায় বিশেষজ্ঞ আলোচকরা এসব কথা বলেন। সভাটির আয়োজন করে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন ও স্বাস্থ্য অধিদফতর।

ডিএনসিসির অঞ্চল-১ এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম ফকিরের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মমিনুর রহমান মামুন, স্বাস্থ্য অধিদফতরের জাতীয় ম্যালেরিয়া নির্মূল কর্মসূচির মেডিকেল অফিসার ডা. মো. রাশিদুজ্জামান খান, ডিএনসিসির স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. ইমদাদুল হকসহ ওয়ার্ড কাউন্সিল ও সমাজের বিভিন্ন স্তরের স্টেক হোল্ডাররা।

ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া বিষয়ক অবহিতকরণ সভায় বক্তারা বলেন, ‘এডিস মশা সাধারণত বাসাবাড়িতে ফুলের টব, টায়ার, ফ্রিজ, এসিতে জমে থাকা পানিতে জন্মায়। এসব পরিস্কারে নগরের প্রত্যেক নাগরিককে সচেতন হতে হবে। নিজ বাড়ির আঙিনা ও চারপাশও পরিস্কার রাখতে হবে। তাহলে মশা জন্মাবে না। মশার ওষুধ ছিটানোর পাশাপাশি ঘুমানোর সময় মশারি টানাতে হবে। সিটি করপোরেশনের উদ্যোগের পাশাপাশি এ ব্যাপারে নাগরিক সচেতনতার বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। নগরের প্রত্যেক নাগরিককে সচেতন হতে হবে। নিজ বাড়ির আঙিনা ও চারপাশ পরিস্কার রাখতে হবে। মশার ওষুধ ছিটানোর পাশাপাশি ঘুমানোর সময় প্রয়োজনে মশারি টানাতে হবে।’

চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্তের ক্ষেত্রে জরুরি স্বাস্থ্যসেবা ও পরামর্শ পেতে ০১৭৮৭৬৯১৩৭০ নম্বরে যোগাযোগ করার আহ্বান জানানো হয়।

‌ব্রে‌কিংনিউজ/এএইচএস/জেআই